adv
২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সমুদ্রের তলায় অন্য রকম শহর!

কল্পিত সমুদ্র তলার শহরের অভ্যন্তর ভাগের একটি নমুনাডেস্ক রিপোর্ট : যতই দিন যাচ্ছে মানুষের মনে জš§ হচ্ছে নতুন নতুন চিন্তার। তেমনই এক নতুন চিন্তার রূপায়ণ ঘটাতে চলেছে জাপানের এক কনস্ট্রাকশন কোম্পানি। বাস্তবেই সমুদ্রের নিচে শহর গড়তে চলেছে তারা।
কনস্ট্রাকশন কোম্পানিটির নাম শিমিজু করপোরেশন। ইতিমধ্যেই ওই কোম্পানি সমুদ্রের নিচে শহর দআটলানটিসদ-এর টেমপ্লেট প্রকাশ করেছে। তাদের মতে, এটা হবে সমুদ্রের তলদেশে একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ শহর।
জানা যায়, ওশেন স্পাইরাল প্রোজেক্টে বিশাল আকৃতির সর্পিল স্ট্রাকচারে একটা আরেকটার সঙ্গে জুড়ে ওয়াটারটাইট ঘরগুলোর সঙ্গে সংযোগ রক্ষা করবে। আর এই সর্পিল স্ট্রাকচারগুলো মিথেন ত্যাগ করা মাইক্রো অরগানিজম থেকে শক্তি সংগ্রহ করবে। এতে সমুদ্রতলদেশ থেকে অনান্য যৌগও সংগ্রহ করা যাবে। সর্পিল আকৃতির স্ট্রাকচারগুলোর দৈর্ঘ্য বরাবর তৈরি হবে যাতায়াতের পথ।
প্রায় ৫,০০০ মানুষ এই স্পাইরাল স্ট্রাকচারের উপরে একটা স্বচ্ছ বলের মধ্যে স্বচ্ছন্দে থাকতে পারবেন। সমুদ্রতলদেশ থেকে উপরে থাকার কারণে এই বলে সহজেই সূর্যের আলো এসে পৌঁছাবে। তবে খারাপ আবহাওয়ায় বড় ঢেউ মাঝে মাঝে এসে ধাক্কা দিতে পারে এই বলকে।
পুরো ব্যাপারটা কাল্পনিক মনে হলেও শিমিজু কর্তৃপক্ষের দাবি, ২০৫০ সালের মধ্যেই এই রকম একটা শহর তৈরি করে ফেলবে তারা। এই সংস্থার দাবি মাত্র ৫ বছরের মধ্যেই তৈরি হয়ে যাবে আস্ত একটা আটলানটিস। খরচ পড়বে ২৬ বিলিয়ন পাউন্ড।
তথ্যসূত্র : ওয়াশিংটন পোস্ট

 

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া