adv
২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বউ দাও- ভোট নাও

প্রতীকী ছবিআন্তর্জাতিক ডেস্ক : বেশ কয়েক বছর আগে মাতৃভূমি নামে একটি হিন্দি ছবি মুক্তি পেয়েছিল। সেখানে নারী-শূন্য এক গ্রামের গল্প তুলে ধরা হয়। ক্রমাগত কন্যা ভ্রূণহত্যা করায় সেই গ্রামে বিবাহযোগ্য পুরুষের জন্য পাত্রীর অভাব প্রকট আকার ধারণ করে।
অনেকটা সেই মাতৃভূমির ছবির গল্প এবার দেখা গেল ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের জিন্দ জেলায়। গর্ভের কন্যা সন্তানের ভ্রুণ হত্যার ফলে এই জেলায় নারী-পুরুষের অনুপাত ভারতের অন্য জেলাগুলোর তুলনায় সবচেয়ে কম। প্রতি হাজার পুরুষে এখানে মহিলার সংখ্যা মাত্র ৮২৭। ফলে বিয়ের জন্য মেয়ে জুটছে না এখানকার পুরুষদের। যে জাতিকে জন্মের আগেই নির্বিচারে খুন করে এসেছে তারা, তাদের জন্যই এখন হন্যে হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।
কনে পেতে তাই এখন ভরসা রাজনৈতিক নেতারাই। হরিয়ানা রাজ্যে সামনে ভোট। ভোট পেতে সবসময় উদগ্রীব থাকেন নেতারা। ভোটের আগে রাস্তাঘাট, পানীয় জল, স্কুল-কলেজের দাবি তোলা পুরোনো ঘটনা।
 
এবার আর রাস্তাঘাট, স্কুল-কলেজের দাবি নয়। দাবি একটাই- ‘বউ দাও, ভোট নাও।’ অর্থাৎ কনে যোগাড় করে দিতে পারলে তবেই পড়বে ভোট। এই অবস্থার সুযোগ নিতে রাতারাতি অফিস খুলে বসেছে বেশ কিছু মেট্রিমোনিয়াল এজেন্সি। মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে পাত্রী জোগাড় করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে তারা। টাকাপয়সাওয়ালা লোকদের পক্ষে সম্ভব হলেও মেট্রিমোনিয়াল এজেন্সির সাহায্য পাচ্ছে না গরিবরা। ফলে ভরসা রাজনৈতিক নেতারা। তাদের পক্ষেই সব সম্ভব কিনা!
রাজনীতিকরা অবশ্য এ বিষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন। এক প্রবীণ কংগ্রেস নেতার কথায়, ‘কন্যাভ্রুণ হত্যার সময় এই কথা মনে ছিল না- বিয়ের জন্য মেয়ের দরকার পড়েই। কনে তো কোনো পণ্য নয়, যে এভাবে তাদের জোগাড় করা যায়। এই ধরনের দাবি কেউ-ই মেনে নিতে পারে না। 
কিন্তু শেষ ভরসা স্থল রাজনৈতিক নেতারাও যদি মুখ ঘুরিয়ে নেয়, তবে বিয়ের কী হবে? আশার কথা হলো- ভোট পেতে অনেক নেতাই এই দাবি পূরণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
তথ্যসূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
September 2014
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া