adv
২৫শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

উত্তাল রংপুর- ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতিরোধ করতে বললেন এরশাদ

ডেস্ক রিপোর্ট : রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে ১৪৪ ধারা জারির পর এরশাদপন্থী নেতাকর্মীরা শাপলা চত্বরে এবং রাঙ্গাপন্থী নেতাকর্মীরা নগরীর পায়রাচত্বরে সমাবেশ করেছেন। এরশাদপন্থীদের সমাবেশে ককটেল বিস্ফোরণ ও ইটপাটকেলে নিক্ষেপের ঘটনায় নগরীতে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় এক সাংবাদিকসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে নগরীতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
এদিকে এ ঘটনার পর জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ এক টেলিকনফারেন্সে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে দেয়া  বক্তব্যে বলেছেন, তোমরা আসিফদের সাপোর্ট করো। ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলো।
বেলা ১২ টা ৪৫ মিনিটে সেখানে এরশাদ টেলিকনফারেন্সে বক্তব্যে বলেন, তোমরা ভালো আছো। তোমরা আসিফদেরকে সাপোর্ট করো। আমি তোমাদের সঙ্গে আছি। তোমরা ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলো।
নতুন কমিটি অনুমোদন দেয়ায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে অভিনন্দন জানিয়ে এরশাদপন্থী এবং প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গার দলীয় পদ পদবি ও কমিটি পুনবর্হালের দাবিতে রাঙ্গাপন্থীরা একই সময়ে পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে সমাবেশ ও বিক্ষোভের ডাক দিলে প্রশাসন শনিবার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করে। ফলে সকাল থেকেই এরশাদপন্থী নেতাকর্মীরা নগরীর সেনপাড়ায় এরশাদের পৈত্রিক নিবাস স্কাই ভিউ লাঙ্গল ভবনে এবং রাঙ্গাপন্থী নেতাকর্মীরা সেন্ট্রাল রোডস্থ জাতীয় পার্টির কার্যালয়ে অবস্থান নেয়।
দুপুর সোয়া ১২ টায় এরশাদ অনুমোদিত কমিটির জেলা ও মহানগর কমিটি অভিনন্দন মিছিল নিয়ে ঢাকা কোচ স্ট্যান্ড হয়ে শাপলা চত্বরে গিয়ে সমাবেশ করে। সমাবেশ শুরুর এক মিনিট পরেই চত্বরের পশ্চিম পার্শ্বে মিস্টাঙ্গন বিল্ডিংয়ের নির্মানাধীন ভবন থেকে পরপর দুটি ককটেল হামলা হয় সমাবেশ স্থলে। শুরু হয় ইটপাটকেল নিক্ষেপ।
এ সময় এরশাদপন্থী নেতাকর্মীরা হামলাকারীদের ধাওয়া করে প্রতিরোধ গড়ে তোলে। ককটেল হামলায় অনলাইন পোর্টাল বাংলা নিউজের রিপোর্টার সাজ্জাদ হোসেন বাপ্পী, জাতীয় ছাত্রসমাজ নেতা আমিনুল ইসলাম, জাতীয় পার্টি কর্মী সাবেক কাউন্সিলর বাটুয়া, শামীম, ফরহাদ, হীরা, নজরুল, রমজানসহ অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। হামলার পর সেখানে সমাবেশে বক্তব্য দেন জেলা কমিটির আহ্বায়ক সাবেক এমপি মোফাজ্জল হোসেন মাস্টার, সদস্য সচিব সাবেক এমপি এইচএম শাহরিয়ার আসিফ, মহানগর কমিটির আহ্বায়ক সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, সদস্য সচিব এসএম ইয়াসির প্রমুখ।
এদিকে শাপলা চত্ত্বরে এরশাদপন্থীদের সমাবেশ চলাকালেই সেন্ট্রাল রোডস্থ জাতীয় পার্টির অফিস থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে পায়রা চত্বরে যাতায়াত বন্ধ করে দিয়ে প্রতিমন্ত্রী রাঙ্গার জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম পদ এবং রংপুর জেলা ও মহানগর কমিটি পুনর্বহালের দাবিতে অবস্থান নিয়ে সমাবেশ করে।

সেখানে বক্তব্য দেন বিলুপ্ত জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সামসুল ইসলাম, জাতীয় যুব সংহতির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, সেক্রেটারি হাসানুজ্জামান নাজিম, জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি শামীম সিদ্দিকী,  জাতীয় ছাত্র সমাজের জেলা সভাপতি আশরাফুল হক জবা, জাতীয় শ্রমিক পার্টির সভাপতি রাজু আহমেদ, মহানগর যুব সংহতির সভাপতি ইউসুফ আহমেদ, মহিলা পার্টির রাবেয়া খাতুন ও রোজিনা বেগম প্রমুখ।
এ সময় রাঙ্গাপন্থী নেতারা ঘোষণা দেন, প্রতিমন্ত্রী রাঙ্গার পদ পদবি এবং জেলা ও মহানগর কমিটি পুনর্বহাল না করা পর্যন্ত মাঠে তারা মাঠে থাকবেন। প্রয়োজনে ঢাকায় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনেও তারা অবস্থান গ্রহণ করবেন।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
September 2014
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া