adv
২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘তওবা না করে দেশে ঢুকতে পারবে না তারেক জিয়া’

TAREQ-ZIA20120718185148ডেস্ক রিপোর্ট : তওবা না করলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বাংলাদেশে ঢুকতে দেয়া হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে নাস্তিক মুরতাদ প্রতিরোধ কমিটি।
সেই সঙ্গে ‘ধর্মকে কেন্দ্র করে কোনো রাজনৈতিক দল হতে পারে না’ তারেক রহমানের এমন বক্তব্যে ক্ষুুব্ধ হয়ে উঠেছে ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দলগুলো। তারেক রহমান ইসলাম ও কোরআনের অবমাননা করেছেন বলেও অভিযোগ করেছেন ইসলামি রাজনীতিক ও বিশেষজ্ঞরা।
বুধবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে নাস্তিক মুরতাদ প্রতিরোধ কমিটির নেতারা বলেন, একজন প্রকৃত মুসলমানের পক্ষে ইসলামের ফরজ বিধান অস্বীকার করার কোনো সুযোগ নেই। তারেক রহমান ধর্মভিত্তিক রাজনীতি চলতে পারে না বলে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা একজন মুসলমান করতে পারে না। তাকে মনে রাখতে হবে, ইসলামের দুশমনী করে যুগে যুগে কারো শেষ রক্ষা হয়নি। তার তওবা করা ছাড়া ইসলামে ফিরে আসার সুযোগ নেই। বাংলাদেশের মাটিতে কোনো নাস্তিক-মুরতাদের ঠাঁই নেই।
এদিকে পবিত্র কোরআনের উদ্ধৃতি নিয়ে আলেমরা বলছেন, তারেকের এ বক্তব্য সরাসরি কোরআনের বিরুদ্ধাচরণ। বিএনপির জোটসঙ্গী ও ভোটসঙ্গী কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক ইসলামি দলগুলোর মতে, এতে করে বিএনপির সঙ্গে অন্য ধর্মভিত্তিক দলগুলোর দূরত্ব বাড়বে। তবে বিএনপির ¯’ায়ী কমিটির একজন সদস্য বলছেন, আধুনিক বিশ্বে ধর্মভিত্তিক রাজনীতিও এক ধরনের বিভ্রান্তি। তবে তারেক রহমানের বক্তব্যে কোনো প্রভাব পড়বে কি-না, তা তিনি বলেননি।
বুধবার দিনভর তারেক রহমানের বক্তব্য প্রসঙ্গে আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে ধর্মভিত্তিক দলগুলোর ভেতরে। কয়েকজন ইসলামি রাজনীতিক ও আলেমের সঙ্গে কথা বললে তারা এ মতামত ব্যক্ত করেন।
২০০১ সালে চারদলীয় জোটের সঙ্গে বড় দুটি দলই ছিল কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক ধর্মভিত্তিক দল। সোমবার বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বক্তব্যে এই দুটি দলের নেতারা ক্ষুব্ধ হয়েছেন। পাশাপাশি শরিকদলগুলোর নেতা আকারে-ইঙ্গিতে বলছেন, এতে করে বিএনপির সঙ্গে জোটের শরিকদের দূরত্ব বাড়বে।
জোটের আরেক প্রতিষ্ঠাতা শরিক দল খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ মুনতাসির আলী বলেন, তারেক রহমানের ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে গভীর অজ্ঞতা রয়েছে। এতে করে জোটের অভ্যন্তরে জটিলতা তৈরি হবে।
তিনি আরো বলেন, তারেক রহমানকে মনে রাখতে হবে এদেশে ফিরতে হলে এবং জনমানুষের রাজনীতি করা ইসলামের বিরুদ্ধে বলে সম্ভব হবে না। তা হলে দেশের মানুষ তাকে প্রত্যাখ্যান করবে।
তিনি আরো বলেন, জোটের মধ্যে আমরা যারা ইসলামি দল রয়েছি, তারা কেউ ক্ষমতা বা লোভের কারণে জোটভুক্ত হইনি। বিএনপির সঙ্গে জোট করা হয়েছিল দেশের সামগ্রিক পরি¯ি’তি ও প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেই।
 
সম্মিলিত উলামা মাশায়েখ পরিষদের অন্যতম শীর্ষ নেতা, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মহাসচিব আল্লামা জাফরুল্লাহ খান বলেন, প্রথমত, প্রধানমন্ত্রীপুত্র জয় ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ছেলে তারেকের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। দুজনেরই ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে সমান অজ্ঞতা রয়েছে। ভদ্রলোক (তারেক) ইসলামি রাজনীতিকে অস্বীকার করেছেন। রাজনীতিতে ধর্ম নেই, বা ধর্মকে কেন্দ্র করে রাজনীতি হতে পারে না, এমন কথা বলার মানেই হচ্ছে কোরআনের পরিষ্কার বিরোধিতা করা। তারেক রহমান এই কাজটিই করেছেন।
 
ইসলামি গবেষক ও লেখক জাফরুল্লাহ খান আরো বলেন, নিঃসন্দেহে তারেক রহমানের বক্তব্য ইসলামের বিরোধিতা করেই দেওয়া হয়েছে। সম্মিলিত উলামা মাশায়েখ পরিষদের যুগ্ম মহাসচিব, মসজিদ মিশনের সেক্রেটারি জেনারেল ড. মাওলানা খলিলুর রহমান মাদানী বলেন, তারেক রহমান ‘ইসলামী রাজনীতি চলতে পারে না’ বলে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা প্রত্যাহার করে তাকে তাওবা করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, শতকরা ৯৫ ভাগ মুসলমানের এদেশে ধর্মীয় রাজনীতির বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার অর্থই হলো ইসলামি রাজনীতি তথা জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহর বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া। পবিত্র কুরআনের ১২৮ স্থানে এবং হাদিস শরীফের অসংখ্য জায়গায় জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহ তথা ধর্মীয় রাজনীতি ফরজ করা হয়েছে। অথচ তারেক রহমান কোন সাহসে, কীসের লোভে, কাদের চাপে এহেন জঘন্য ইসলাম বিদ্বেষী বক্তব্য দিতে সাহস করলেন তা মুসলিম উম্মাহকে ভাবিয়ে তুলেছে।
 
বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল বলেন, ইসলাম পরিপূর্ণ জীবন ব্যবস্থার নাম। তারেক রহমান যে বক্তব্য দিয়েছেন, কোনো ইসলামি দল তার বক্তব্যের সঙ্গে একমত হতে পারে না।
উল্লেখ্য, বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটে জামায়াতে ইসলামী ছাড়াও খেলাফত-ই-মজলিশ, ইসলামি ঐক্যজোট, বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টিসহ আরো কয়েকটি ধর্মভিত্তিক দল রয়েছে।
 
তারেক যা বলেছেন:
ধর্মকে কেন্দ্র করে কোনো রাজনৈতিক দল হতে পারে না বলে বক্তব্য দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। বাংলাদেশের ধর্মভিত্তিক দলগুলো রাজনৈতিক পরিবেশ তৈরি করতে ব্যর্থ হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
বিএনপির ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে লন্ডনে এক অনুষ্ঠানে সোমবার তিনি এসব কথা বলেন। তারেক বলেন, রাজনীতিতে ধর্মের অবদান থাকতে পারে। কিন্তু ধর্মকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক দল হতে পারে না।
 তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি থাকাকালে ১৯৮০ সালের সেপ্টেম্বরে এক কর্মশালায় জিয়াউর রহমান বলেছিলেন, রাজনৈতিক আদর্শ ধর্মকে ভিত্তি করে হতে পারে না। অবদান থাকতে পারে, কিন্তু ধর্মকে কেন্দ্র করে কখনোই রাজনীতি করা যায় না।
তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের দেশে যে সকল ধর্ম রয়েছে আমাদের অনেকে আছেন সেগুলোকে কেন্দ্র করে রাজনীতির পরিবেশ সৃষ্টি করার ও রাজনীতির রূপরেখা বানাতে চেষ্টা করেন। আমরা বারবার দেখেছি, তারা বিফল হয়েছে।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
September 2014
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া