adv
২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মন চাইলেই খলনায়ক হওয়া যায়না : মিশা

বিনোদন রিপোর্ট : ভালো খলনায়ক হতে হলে ব্যক্তিত্বসম্পন্ন হওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন মিশা সওদাগর। সাড়ে আটশ বাংলা সিনেমায় অভিনয় করা এই ‘খলনায়ক’ আরও বললেন হুট করে খলনায়ক হওয়া যায়না।
‘ছুঁয়ে দিলে মন’ সিনেমার সেটে বসে মিশা বলেন, খলনায়ক হওয়া চাট্টিখানি কথা নয়। সেজন্য বেশ কিছু গুণ থাকা দরকার। সবার আগে তাকে আগাগোড়া ভালো মানুষ হতে হবে। তাকে কঠোর ব্যক্তিত্বসম্পন্ন হতে হবে। তবেই সে চরিত্র নিয়ে খেলতে পারবে।
নায়কদের মতো খলনায়কদের কোনো ছকে বাঁধা অভিনয় করতে হয় না। তাকে কখনও ভালো মানুষ, কখনো প্রচণ্ড খারাপ মানুষের দৃশ্যে অভিনয় করতে হয়। এজন্য দরকার অভিজ্ঞতা। হুট করে এসে খলনায়ক হওয়া যায় না। সেই সঙ্গে তাকে শারীরিকভাবেও ফিট থাকতে হবে। ফিটনেস হারালে কোনো পরিচালকই তাকে আর ডাকবে না। আরও জানালেন সবসময় চরিত্র নিয়ে ভাবেননি তিনি।
বেশকিছু সিনেমাতে স্রেফ টাকার জন্যে অভিনয় করেছি। গল্প ও চরিত্র না ভেবেই সিনেমাগুলোর প্রস্তাব গ্রহণ করেছি। পরে দেখে মনে হয়েছে সেসব চরিত্রে কাজ করা মোটেই ভালো কিছু হয়নি। সে অভিজ্ঞতা থেকে মিশা সতর্কও হয়েছেন। তার সিদ্ধান্ত, এখন থেকে ভেবেচিন্তে তবেই সাইন করব সিনেমাতে। আর উল্টোপাল্টা চরিত্রে না।
মিশা এখন ২৬টি সিনেমাতে অভিনয় করছেন। বেশিরভাগ সিনেমাতেই তাকে খলচরিত্রে দেখা যাবে। বিগ বাজেটের সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে অনন্ত জলিলের ‘মোস্ট ওয়েলকাম -২’, শাকিব খানের ‘হিরো-দ্য সুপারস্টার’। দুটি সিনেমাই মুক্তি পাচ্ছে ঈদুল ফিতরে। এছাড়াও তার অভিনীত ‘আই ডোন্ট কেয়ার’ সিনেমাটিও মুক্তির কথা রয়েছে।
১৯৯৩ সালে ‘আশা ভালোবাসা’ সিনেমার মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করেন মিশা। ‘নূরা পাগলা’, ‘দানব’, ‘গ্যাংস্টার’, ‘ল্যাংড়া মাসুদ’সহ আরও বেশকিছু সিনেমাতে তিনি নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। ‘প্রিয়া আমার প্রিয়া’ সিনেমাতে প্রথমবারের মতো ‘পজিটিভ’ চরিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৯৮ সালে মান্নাকে নিয়ে নির্মিত ‘প্রতিবাদী মাস্টার’ সিনেমার মাধ্যমে প্রযোজকের খাতায় নাম লেখান তিনি।

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া