adv
২৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রেস ক্লাবে যাচ্ছেন খালেদা

নিজস্ব প্রতিবেদক : সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে গুম-খুনের প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী আইনজীবীদের সমাবেশে যোগ দেয়ার চেষ্টা করতে পারেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সুপ্রিম কোর্টে যেতে তাকে বাধা দেয়া হলে তিনি জাতীয় প্রেস ক্লাবে যাবেন। প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে চলছে বিএনপির সমাবেশ। উপস্থিত আছেন দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ শীর্ষ নেতা ও আইনজীবীরা। অন্যদিকে বাধা সত্ত্বেও জাতীয়তাবাদী আইনজীবীদের কিছু সদস্য সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে সমাবেশ করছেন।
বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, খালেদা জিয়া দুপুর ১২টার দিকে গুলশানের বাসা থেকে রওয়ানা দিয়েছেন। তিনি সরাসরি প্রেস ক্লাবে যাবেন নাকি সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার চেষ্টা করবেন তা এখনো জানা যায়নি।
শনিবার সকাল ১০টা থেকে সুপ্রিম কোর্ট চত্বরে জাতীয়তাবাদী আইনজীবীদের সমাবেশ হওয়ার কথা ছিল। গুম-খুনের প্রতিবাদে আয়োজিত এই সমাবেশে খালেদা জিয়া প্রধান অতিথি। তবে সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্টের সব ফটকে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে পুলিশ। সমাবেশ মঞ্চও গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে কমপক্ষে ১৬ আইনজীবীকে।
কিছুসংখ্যক আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টের ভেতরে সমাবেশ চালিয়ে গেলেও পুরো এলাকায় বিরাজ করছে উত্তেজনা। এ পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়াকে সুপ্রিম কোর্টে ঢুকতে দেয়া হবে না বলেই আভাস পাওয়া গেছে। তবে সেখানে যেতে না পারলে খালেদা জিয়া প্রেস ক্লাবে যাবেন। সেখানেও তাকে বাধা দেয়া হতে পারে বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। প্রসঙ্গত, এর গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে গুম-খুনের প্রতিবাদে বিএনপির আয়োজিত সমাবেশও পণ্ড হয়ে যায় পুলিশি বাধায়। পরে খালেদা জিয়া তার গুলশান কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সামনে তার বক্তব্য তুলে ধরেন।

নিজস্ব প্রতিবেদক : সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে গুম-খুনের প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী আইনজীবীদের সমাবেশে যোগ দেয়ার চেষ্টা করতে পারেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সুপ্রিম কোর্টে যেতে তাকে বাধা দেয়া হলে তিনি জাতীয় প্রেস ক্লাবে যাবেন। প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে চলছে বিএনপির সমাবেশ। উপস্থিত আছেন দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ শীর্ষ নেতা ও আইনজীবীরা। অন্যদিকে বাধা সত্ত্বেও জাতীয়তাবাদী আইনজীবীদের কিছু সদস্য সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে সমাবেশ করছেন।
বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, খালেদা জিয়া দুপুর ১২টার দিকে গুলশানের বাসা থেকে রওয়ানা দিয়েছেন। তিনি সরাসরি প্রেস ক্লাবে যাবেন নাকি সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার চেষ্টা করবেন তা এখনো জানা যায়নি।
শনিবার সকাল ১০টা থেকে সুপ্রিম কোর্ট চত্বরে জাতীয়তাবাদী আইনজীবীদের সমাবেশ হওয়ার কথা ছিল। গুম-খুনের প্রতিবাদে আয়োজিত এই সমাবেশে খালেদা জিয়া প্রধান অতিথি। তবে সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্টের সব ফটকে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে পুলিশ। সমাবেশ মঞ্চও গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে কমপক্ষে ১৬ আইনজীবীকে।
কিছুসংখ্যক আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টের ভেতরে সমাবেশ চালিয়ে গেলেও পুরো এলাকায় বিরাজ করছে উত্তেজনা। এ পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়াকে সুপ্রিম কোর্টে ঢুকতে দেয়া হবে না বলেই আভাস পাওয়া গেছে। তবে সেখানে যেতে না পারলে খালেদা জিয়া প্রেস ক্লাবে যাবেন। সেখানেও তাকে বাধা দেয়া হতে পারে বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। প্রসঙ্গত, এর গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে গুম-খুনের প্রতিবাদে বিএনপির আয়োজিত সমাবেশও পণ্ড হয়ে যায় পুলিশি বাধায়। পরে খালেদা জিয়া তার গুলশান কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সামনে তার বক্তব্য তুলে ধরেন।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া