adv
৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সিলগালা ভেঙে মার্কেট দখল করল সৈনিকলীগ ক্যাডাররা

নিজস্ব প্রতিবেদক :  রাজধানীর কাপ্তান বাজার মার্কেটের সিলগালা ভেঙে ডিসিসির মার্কেটের শতাধিক দোকান দখল করে নিয়েছে সৈনিকলীগ ক্যাডার ও ¯’ানীয় প্রভাবশালীরা। শুধু তাই নয়, মার্কেটটির মালিক ডিসিসি হলেও জোরপূর্বক দখল করে রীতিমত বরাদ্দ দিচ্ছে   প্রভাবশালীরা। সরেজমিন পরিদর্শনে গিয়ে দেখা গেছে, স্থানীয় প্রভাবশালীরা মার্কেটে একটি অফিস খুলে বসে দোকান ভাড়া ও বরাদ্দপত্র দিচ্ছে ভাড়াটিয়াদের। এই সুযোগে তারা হাতিয়ে নিয়েছে কয়েক কোটি টাকা।
ডিসিসি দক্ষিণের একটি সূত্র জানায়, ঢাকা সিটি কর্পোরেশন দক্ষিণ এর অধীনে কাপ্তান বাজার কমপ্লেক্স-১ এর ভবনের নীচ তলায় ৪৪টি এবং ২য় তলায় ৪৪টি দোকান দখল করে নিয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালী ক্যাডার বাহিনী। ডিএসসিসির একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ২০১২ সালের ২০ অক্টোবর মার্কেট হতে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে ৮৮টি দোকান সিলগালা করে  ডিসিসি দক্ষিণ। কিন্তু ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশও মানেনি স্থানীয় প্রভাবশালীরা। তারা তালা ভেঙে এসব দোকান পুনরায় দখল করে নেয়। এ পর্যায়ে উক্ত মার্কেটের বৈধ দোকানদাররা বিষয়টি নিয়ে সিটি কর্পোরেশনে আবেদন করলে এক মাস পর  একই বছর ১১ নভেম্বর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে  ভ্রাম্যমান  আদালত দোকানগুলো অবৈধদখল মুক্ত করে আবারো সিলগালা করে ডিএসসিসি কর্তৃপক্ষ। কিন্তু শক্তিশালী অবৈধ দখলদাররা  প্রভাব খাটিয়ে ক্যাডাররা তৃতীয়বারের মতো সিলগালা ভেঙে দোকানগুলো দখল করে বরাদ্দ দেয়া শুরু করে। এর নেতৃত্ব দেন  একটি  নাম সর্বস্ব সংগঠনের সৈনিকলীগ  সভাপতি ওমর ফারুক। এ ঘটনায় মার্কেটটির সমিতির নেতৃবৃন্দসহ সাধারণ দোকানদাররা হতভম্ব হয়ে পড়েন। তারা মার্কেটের অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে বৈধ বরাদ্দ প্রাপ্তদের দোকান বুঝিয়ে দেয়ার জন্য প্রশাসকের কাছে আবেদন করলেও এখন পর্যন্ত কোন সাড়া মিলছে না।
সূত্র জানায়, দখলবাজরা স্থানীয় প্রভাবশালীদের সঙ্গে ডিসিসির সম্পত্তি ও মার্কেট বিভাগের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর যোগসাজস রয়েছে। তারা দখলকৃত প্রত্যেকটি দোকান থেকে গড়ে ৮ লাখ টাকা করে নিয়ে প্রায় ৭ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। বর্তমানে প্রত্যেক দোকান থেকে মাসে ১০ হাজার টাকা করে ভাড়াও আদায় করছে। এদিকে মার্কেট সমিতির বৈধ দোকানদাররা ১২ বছর আগে নগর ভবনে সালামীর টাকা জমা দিলেও দোকান বরাদ্দ না পেয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। 
এব্যাপারে ওমর ফারুকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি দাবি করেন, কাপ্তান বাজার মার্কেটের দোকান বরাদ্দ পাবে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির লোকজন। কোন জামায়াত বা বিএনপির লোকজনকে এখানে ব্যবসা করতে দেয়া হবে না। তবে দোকান বরাদ্দের ব্যাপারে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।
এ বিষয়ে প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা খালেদ আহমেদ জানান, বার বার উচ্ছেদের পরও অবৈধ দখলদাররা মার্কেটটি দখল করে আছে। শিগগির উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে তিনি জানান।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া