adv
২৪শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এ সরকারের কাছে তিস্তা চুক্তি আশা করা যায় না: ফখরুল

ডেস্ক রিপোর্ট : বর্তমান সরকারকে নতজানু ও তাবেদার দাবি করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এ সরকারের কাছে তিস্তা চুক্তির আশা করা যায় না। এজন্য জনগণের সরকারের প্রয়োজন। তাই নতুন সরকারের জন্য সবার অংশগ্রহণে নির্বাচন দিতে হবে। সেজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন করতে হবে।
মঙ্গলবার তিস্তা অভিমুখে লংমার্চে সিরাজগঞ্জের কড্ডার মোড়ে পথসভায় ফখরুল এসব কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন সাবেক মন্ত্রী ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।
এই মুহূর্তে পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে তিস্তা অভিমুখে বিএনপির লংমার্চ এখন বগুড়ার উদ্দেশ্যে এগিয়ে চলছে। সকাল নয়টার দিকে রাজধানী থেকে শুরু হওয়া লংমার্চে ইতিমধ্যে কালিয়াকৈর, টাঙ্গাইলের বাসপাস মোড় ও সিরাজগঞ্জের কড্ডার মোড়ে তিনটি পথসভা করেছে। এতে লংমার্চের নেতৃত্বদানকারী বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা বক্তব্য দেন।
এই স্পটগুলোতে স্থানীয় বিএনপির আয়োজনে অস্থায়ী মঞ্চ তৈরি করে নির্ধারিত সময়ের আগেই নেতাকর্মীদের জড়ো হয়ে লংমার্চের সমর্থনে মিছিল-স্লোগান দিতে দেখা গেছে। তবে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার অন্য সময়ের কর্মসূচিতে এই জনপদে নেতাকর্মীদের যেমন উপস্থিতি ল্য করা যায় এবার তার থেকে অনেকটা কম চোখে পড়েছে।
মির্জা ফখরুল বলেন, তিস্তাসহ ৫৪টি অভিন্ন নদীর পানি আমাদের অধিকার। অথচ আন্তর্জাতিক আইন অমান্য করে কোনো ধরনের আলোচনা না করে একরতফাভাবে উজানের পানি প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এর প্রতিবাদে জনগণকে সচেতন করতে আমরা লংমার্চ করছি, যাতে বাংলাদেশ ও ভারত সরকারকে পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ে চাপ দেয়া প্রয়োগ করা যায়।
তিনি বলেন, সরকারের কোনো ভিত্তি নেই। তারা জনগণের ভোটে মতায় আসেনি। কারণ দেশের পাঁচ ভাগ মানুষও আওয়ামী লীগকে সমর্থন করে না। সরকার, পুলিশের মাধ্যমে মতায় টিকে থাকতে চায় বলেও অভিযোগ করেন ফখরুল। ফখরুল বলেন, বর্তমান সরকার নতজানু ও তাবেদার। তাই তারা তিস্তাসহ কোনো চুক্তি করতে পারবে না। এজন্য সরকারকে সরাতে নতুন নির্বাচন দিতে হবে।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া