adv
১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘পাকিস্তানি সেনার সঙ্গে জিয়ার সম্পর্কের দলিল প্রকাশ করা হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক : মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানি সেনাদের সঙ্গে প্রয়াত জিয়াউর রহমানের সম্পর্কের দলিল শিগগিরই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।
রোববার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড আয়োজিত ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নই আমাদের অঙ্গীকার’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ তথ্য জানান।
আ ক ম মোজাম্মেল হক অভিযোগ করেন, জিয়াউর রহমান যে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিলেন তার প্রমাণ তৎকালীন একজন পাকিস্তানি সেনা কর্মকর্তার চিঠিতে পাওয়া যায়। ওই চিঠিতে সেনা কর্মকর্তা লিখেছিলেন,‘তুমি যা করছো, তাতে আমরা সন্তুষ্ট। তোমাকে শিগগিরই নতুন অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হবে। আর তোমার স্ত্রী ও সন্তান আমাদের কাছে নিরাপদ রয়েছে।
মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে জেনারেল এম এ জি ওসমানী জিয়াকে একবার বরখাস্ত করেছিলেন উল্লেখ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, পরে ক্ষমা চাইলে তাকে সেক্টর কমান্ডারের পদবী ফিরিয়ে দেওয়া হয়। 
ভুয়া ‘সনদধারী’ মুক্তিযোদ্ধাদের সতর্ক করে তিনি বলেন, যারা ভুয়া সনদ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা সেজে বসে আছেন তাদের অচিরেই চিহ্নিত করে সনদ বাতিল করে শাস্তির আওতায় আনা হবে।
মুক্তিযুদ্ধের সময় তাদের অবস্থান কোন পর্যায়ে ছিল তা খতিয়ে দেখা হবে বলেও জানান মন্ত্রী। 
মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধার ছেলে-মেয়েদেরকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী হতে হবে।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বর্তমানে যে লড়াই শুরু হয়েছে তা এগিয়ে নিতে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে আহ্বান জানান মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। 
অনুষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। সংগঠনের সভাপতি মাহবুবুল ইসলাম প্রিন্সের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব আল মামুনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান প্রাতিষ্ঠানিক ইউনিট কমান্ডের আহ্বায়ক ড. অধ্যাপক আব্দুল মান্নান চৌধুরী, ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান, সাধারণ সম্পাদক ওমর শরীফ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 
আলোচনা শেষে ঢাবিতে চলতি শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হওয়া প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদেরকে (মুক্তিযোদ্ধার সন্তান) বরণ করে নেওয়া হয়। 
এরপর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী আবদুল জব্বার ও মনোরঞ্জন ঘোষাল সংগীত পরিবেশন করেন।

জয় পরাজয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া