adv
২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধুকে বাস্তব রূপে রূপান্তর করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গবন্ধুর নামে অনেক দোকান খোলা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়ামের অন্যতম সদস্য এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী।বৃহস্পতিবার পাবলিক লাইব্রেরির ভিআইপি সেমিনার কক্ষে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট।একজন প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ও আওয়ামী লীগের এক সময়ের কান্ডারি জিল্লুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী এরকম ঘরোয়া পরিবেশে আয়োজন করায় ক্ষোভ প্রকাশ করে মন্ত্রী বলেন, তিনি সবাইকে আদর করতেন।তার অর্থ এই নয় যে তোমরা তাকে হেয় করবা, ছোট করবা বা তাকে নিয়ে দোকানদারি করে পণ্য হিসেবে বিক্রি করবা। যেমন বঙ্গবন্ধুকে নিয়েও অনেক দোকান খোলা হয়েছে।বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে দোকানদারি না করে তাকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তাহলেই সব সত্য বেড়িয়ে আসবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।সাবেক রাষ্ট্রপতি একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীকে উদ্দেশ্য করে লতিফ সিদ্দিকী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাকে বদু কাকা সম্বোধণ করায় তিনি খুব আপত্তি করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন একজন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিকে নিয়ে এভাবে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করা যায়না। কিন্তু তিনি নিজেই নিজেকে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করেছেন। কারণ পৃথিবীর কোথাও একজন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি আর রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হননা।কিন্তু আপনিতো রাজনীতিতে এসেছেন। তাহলে আপনি আর রাষ্ট্রপতি রইলেন কোথায়?উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, এরশাদ সাহেব এখন আর রাষ্ট্রপতি নন। তিনি একজন সংসদ সদস্য। সুতরাং রাজনীতি করতে হলে তাকে নিয়ে কথা বলতেই হবে।মন্ত্রী বলেন, ‘১৯৫৬ সালে বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাবা কফিল উদ্দীন  চৌধুরীসহ কয়েকজন নেতা পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগের ৩৩ জনের কমিটিতে তৎকালীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে অনাস্থা আনার চেষ্টা করেছিলেন। আন্তর্জাতিক ও পাকিস্তানি ষড়যন্ত্রে তারা বঙ্গবন্ধুকে সরাতে চেয়েছিলেন।কিন্তু তৎকালীন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রধান হিসেবে জিল্লুর রহমানের তীক্ষ্ণ বক্তব্যে ওই তারা পিছু হটতে বাধ্য হয়েছিলেন।আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক শাহ্ আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, স্বাধীন বাংলা  বেতার কেন্দ্রের শিল্পী মনোরঞ্জন ঘোষাল প্রমুখ।সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া