adv
২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খালেদার কলকাঠিতে পিলখানা হত্যাকাণ্ড

ঢাকা: পিলখানা হত্যাকাণ্ডের পেছনে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কলকাঠি নেড়েছেন বলে দাবি করেছেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘সেদিন খালেদা জিয়ার অবস্থান থেকেই এ প্রমাণ পাওয়া যায়।’


মঙ্গলবার সকালে ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) আয়োজিত পিলখানায় ৫৭ জন দেশপ্রেমিক চৌকস শহীদ সেনা অফিসারদের স্মরণে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।


কামরুল ইসলাম বলেন, ‘সেদিনের হত্যাকাণ্ডে ৫৭ জন সেনা অফিসার প্রাণ হারিয়েছেন, যেটা ১৯৭১ সালেও হয়নি।  ২০০৯ সালে পিলখানায় সেনা হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে যারা ষড়যন্ত্র করেছে তাদেরকে ও বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হবে।’


তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যা, জঙ্গিবাদের উত্থান, শেখ হাসিনাকে হত্যার পরিকল্পনা একই সূত্রে গাঁথা। সেনা হত্যার নেপথ্যে মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তি ইন্ধন যুগিয়েছে। প্রায় ৩০ বছর রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত ছিল স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি। তারা বুঝতে পারেনি যে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি ক্ষমতায় আসবে।’


পিলখানা হত্যাকাণ্ডের জন্য বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া, তার দলের সাবেক এমপি সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও নাসির উদ্দিন পিন্টুকে দায়ি করেন খাদ্যমন্ত্রী।


খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মহাজোট সরকার খুব স্বল্প সময়ের মধ্যে এ বিচার কাজ সমাপ্ত করতে পেরেছে। এটা সরকারের বিশেষ সফলতা। অন্য কোনো সরকার হলে এত দ্রুত বিচার করতে পারতো না।’


এ সরকার বিচার না করার অভ্যাস থেকে বেরিয়ে এসেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধ , গ্রেনেড হামলা, দশট্রাক অস্ত্র মামলাসহ আমরা সকল অপরাধের বিচার করতে পেরেছি। দলীয় তকমা লাগানো নেতার বিচার করলে নাকি পক্ষপাতদুষ্ট হয়। রাজনীতিবিদরা যখন দুর্নীতি করে, অস্ত্র আনে , গ্রেনেড হামলা করে তার বিচার হলেই নাকি পক্ষপাতদুষ্ট হয়।’


তিনি আরো বলেন, ‘প্রতিহিংসা নিয়ে কাউকে অভিযুক্ত করিনি। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে এ বিচারগুলো হয়েছে। তবে কোনো রাজনৈতিক তকমা লাগানো ব্যাক্তি দোষী হলে তার বিচারও করা হবে।’


একইসঙ্গে তিনি দেশের জনগণের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, ‘আশা করি যার যার অবস্থান থেকে বাকি মামলাগুলোর বিচারের ব্যাপারে সরকারকে সহযোগিতা করবেন।’


আলকায়েদার বিবৃতি সর্ম্পকে মন্ত্রী বলেন, এ ব্যাপারে বিএনপি নেত্রী, হেফাজত  ও জামায়াতের বক্তব্য প্রায় একই। আলকায়েদার সংস্করণ হচ্ছে জামায়াত। দেশের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য এ জঙ্গি গোষ্ঠীকে নির্মূল করতে হবে।’


সংগঠনের চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমেদ ভাসানীর সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব: ) আবদুর রশীদ, আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সভাপতি এম এ করিম, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা প্রমুখ।

জয় পরাজয় আরো খবর

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
February 2014
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
2425262728  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া