adv
৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কাজের মানে অসন্তুষ্ট ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

ঘড়ির কাঁটায় শুরু হয়ে গেছে বিশ্বকাপ কাউন্টডাউন। আর মাত্র ৩০ দিন পর পর্দা উঠছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ক্রিকেটের। আইসিসি’র নির্দেশনা অনুযায়ী বছরখানেক আগে থেকে বিশ্বকাপের চট্টগ্রাম ভেন্যু জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের কাজ চললেও কাজের মান নিয়ে সন্তুষ্ট নন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বিরেন শিকদার।

বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে তিন দফায় প্রায় শত কোটি টাকা টাকা খরচ করে নতুনভাবে ভেন্যুটির সংস্কার কাজ হলেও এসব কাজের মান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ভেন্যু পরিদর্শনে আসা ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বিরেন শিকদার। মঙ্গলবার সকালে পূর্ব নির্ধারিত এক কর্মসূচিতে তিনি চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী ভেন্যু পরিদর্শনে আসেন। এসময় তার সাথে ছিলেন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব শিবনাথ রায় ও বিসিবি’র পরিচালক, চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন।

বিসিবি সূত্র জানায়, ২০১৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সামনে জহুর আহমেদ চৌধুরী বিভাগীয় স্টেডিয়ামটি আরো সুন্দর করে সাজানো হচ্ছে। আন্ডারগ্রাউন্ড রিজার্ভারসহ স্টেডিয়ামের সৌন্দর্যবর্ধনজনিত কিছু সংস্কার কাজ করা হয়েছে। এছাড়া এক সাথে চারটি দলের জন্য দুটি মূল খেলোয়াড় ড্রেসিং রুম ছাড়াও আরো দুটি অতিরিক্ত ড্রেসিং রুম তৈরী করা হয়েছে। বিশ্বকাপ সামনে রেখে স্টেডিয়ামের পূর্ব গ্যালারিতে নতুন করে ১২টি হসপিটালিটি বক্স বসানো হয়েছে। প্রতিটিতে ২০ জন করে বসতে পারবেন। স্টেডিয়ামের জায়ান্ট স্ক্রিনের ত্রুটিও এখনো সারানো যায়নি। এটিতে এখন স্কোর দেখা গেলেও কোনো চলমান ছবি দেখা যাচ্ছে না। বিশ্বকাপ টি-টোয়েন্টির আগে ওই ত্রুটিও সারানোর চেষ্টা চলছে বলে জানা গেছে।

এছাড়া ফ্লাড লাইটের মূল বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য সংরক্ষিত সাব স্টেশন জেনারেটরটি এখন সঠিকভাবে কাজ না করায় মাঝে মাঝে বিদ্যুৎ বিভ্রাটে পড়তে হয়। ২০১২ সালে পাকিস্তান সিরিজ চলাকালীন সময়ে খেলার মাঝপথে বিদ্যুৎ বিভ্রাটে পড়তে হয়েছিল।

পরিদর্শনকালে মন্ত্রী স্টেডিয়ামের নিচ তলায় নির্মিত ড্রেসিং রুম দুটির কাজের মান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সময় তিনি বিসিবি পরিচালক আ জ ম নাছিরকে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ও সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীকে ডাকতে বলেন। পরে আ জ ম নাছির এসব সমস্যা দ্রুত নিজ দায়িত্বে সমাধান করবেন বলে মন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেন। এরপর ফ্লাড লাইটের সমস্যা নিয়েও স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ মন্ত্রী ও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিবকে অভিযোগ করেন। তবে সংস্কার কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তারা দ্রুত সময়ের মধ্যে এসব অসমাপ্ত কাজ শেষ হয়ে যাবে বলে জানান মন্ত্রীকে।

এদিকে মন্ত্রী জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম পরিদর্শনের পর আসেন নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে। তিনি সেখানে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন। এ সময় মন্ত্রী বলেন, ‘জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে যেসব সমস্যা হয়েছে তা দ্রুত সময়ের মধ্যে সমাধান করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আশা করছি সামান্য যে সব সমস্যা আছে তা বিশ্বকাপের আগেই আমরা সম্পূর্ণ করতে পারবো।’

এছাড়া চট্টগ্রামের ক্রীড়ার উন্নয়নে সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবেও বলে তিনি আশ্বাস দেন। তবে এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের ফ্লাইড লাইট, জিমনেশিয়াম হল ও সুইমিং পুলের ব্যাপারে কাজ চলছে জানিয়ে স্পষ্টভাবে কোন কথা জানাননি মন্ত্রী হিসেবে এই প্রথম চট্টগ্রাম সফরে আসা বিরেন শিকদার।

প্রসঙ্গত, চট্টগ্রামে বিশ্বকাপের মূল পর্বের ১৫টি ম্যাচ রয়েছে। এ ছাড়া ১২ মার্চ থেকে চারটি প্রস্তুতি ম্যাচও হবে চট্টগ্রামে।

জয় পরাজয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
February 2014
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
2425262728  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া