adv
২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অবৈধ ভিওআইপি বন্ধে তিন ব্যবস্থা আসছে

image_67599_0ঢাকা: অসুস্থ রাজনৈতিক শক্তি, অসৎ কর্মকর্তা-কর্মচারী, যুগোপযোগী নীতিমালা ও নজরদারির অভাব এবং প্রচুর আয়কেই অবৈধ ভিওআইপির মূল কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন অপারেটর ও বিশেষজ্ঞরা।



এই পরিপ্রেক্ষিতে অবৈধ ভিওআইপি প্রতিরোধে আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে গেটওয়েগুলোর (আইজিডব্লিউ, আইসিএক্স, আইআইজি) নজরদারির জন্য আধুনিক প্রযুক্তি স্থাপন এবং মোবাইল ফোন অপারেটরদের নজরদারির পাশাপাশি  জাতীয় পরিচয়পত্রের সঙ্গে যাচাই করে যাতে  সিম রেজিস্ট্রেশন করা হয়, সে ব্যবস্থা খুব শিগগির শুরু হতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি সরকার।  



তবে গোলটেবিল বৈঠকে অংশ নেয়া বিশেষজ্ঞদের মতে, অবৈধ ভিওআইপি ঠেকাতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি বিভিন্ন উদ্যেগের কথা শোনালেও বাস্তবে প্রযুক্তিগতভাবে তা কখনো সম্ভব হবে না।



শনিবার হোটেল সোনারগাঁওয়ে টেলিকম রিপোটার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ (টিআরএনবি) আয়োজিত এক গোলটেবিল বৈঠকে এসব কথা জানানো হয়। ‘ইলিগ্যল কল টার্মিনেশন, কারেন্ট সিচুয়েশন অ্যান্ড ওয়ে আউট’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে  প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বিটিআরসি চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি বোস।



সুনীল কান্তি  বলেন, “অবৈধ ভিওআইপি প্রতিরোধে আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে গেটওয়েগুলোর নজরদারি করতে আধুনিক প্রযুক্তি স্থাপন করা হবে। এ ছাড়া খুব শিগগির মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর নজরদারি করতেও আধুনিক প্রযুক্তি স্থাপন করা হবে।”



জাতীয় পরিচয়পত্রের সঙ্গে যাচাই করে যেন অপারেটরগুলো সিম রেজিস্ট্রেশন করতে পারে, সে ব্যবস্থা শিগগিরই শুরু হতে যাচ্ছে জানিয়ে চেয়ারম্যান বলেন, এ ব্যবস্থা চালু হলে নজরদারি আরো সহজ হবে। অপারেটরগুলোর সেলফ রেগুলেশনের জন্য আরো কিছু নির্দেশনাও আসছে বলে জানান বিটিআরসি চেয়ারম্যান।



অসুস্থ রাজনৈতিক শক্তির বিষয়ে বক্তারা দৃষ্টি আকর্ষণ করলে চেয়ারম্যান বলেন, “রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে যেভাবে চলে, সেভাবেই চলতে হবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনো রাজনৈতিক চাপ নেই। যেটা অসম্ভব, সেটা সম্ভব করতে পারব না; তবে যেটা অসুবিধার জায়গা, সেটায় বাধা দেব।”



আন্তজার্তিক কল আদান-প্রদানে তিন সেন্ট রাজস্ব দেড় সেন্ট করার বিষয়টিও বিবেচনা করা হচ্ছে বলে জানান বিটিআরসির চেয়ারম্যান।



বিগত কয়েক মাসে অবৈধ ভিওআইপি ফোনের পরিমাণ কম হয়েছে বলে বিটিআরসি চেয়ারম্যান দাবি করলেও অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বর্তমানে দেড় থেকে দুই কোটি মিনিট দিনে অবৈধভাবে আন্তর্জাতিক কল হচ্ছে।



তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ সুমন আহমেদ সাবির বলেন, “যতই কঠোর আইন বা নজরদারি করা হোক, প্রযুক্তিগতভাবে অবৈধ ভিওআইপি বন্ধ করা সম্ভব নয়। কারণ প্রযুক্তিগত উন্নয়নে একটি পদ্ধতি বন্ধ হয়ে গেলে তারা বিকল্প পদ্ধতিতে চলে যাচ্ছে।”



লার্ন এশিয়ার সিনিয়র পলিসি ফেলো আবু সাঈদ খান বলেন, “মোবাইল কল সীমানা অতিক্রম করলেই কোটি কোটি টাকা আসে অবৈধ ভিওআইপি থেকে। শুধু অসুস্থ রাজনীতি নয়, অবৈধ ভিওআইপির টাকায় যে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ হচ্ছে না, তা কে বলবে।”



বাংলালিংকের সিনিয়র পরিচালক (রেগুলেটরি অ্যান্ড লিগ্যাল অ্যাফেয়ার্স) জাকিউল ইসলাম বলেন, অবৈধ ভিওআইপিতে প্রতি কলে অপারেটরদের ৩০ পয়সা ক্ষতি হয়, এ জন্য যুক্তিসংগত কারণেই বৈধ কল চায় অপারেটররা। বাংলালিংক এ পর্যন্ত প্রায় ১১ লাখ সিম বন্ধ করেছে বলেও জানান জাকিউল ইসলাম।



গ্রামীণফোনের চিফ করপোরেট অ্যাফেয়ার্স কর্মকর্তা মাহমুদ হোসাইন বলেন, যারা অবৈধ ভিওআইপি করছে, তারা অনেক স্মার্ট, প্রতিঘণ্টায় তারা সিম পরিবর্তন করছে। প্রতি তিন ঘণ্টায় মনিটরিংয়ের মাধ্যমে সন্দেহজনক সিম বন্ধ করা হয়।

 

রবির এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসডেন্ট (কমিউনিকেশন অ্যান্ড রেগুলেটরি) মাহমুদুর রহমান বলেন, টেকনোলজির সঙ্গে সঙ্গে বিটিআরসির নীতিমালা ও আইন পরিবর্তন করতে হবে।



ম্যাংগো টেলিসার্ভিসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মীর মাসুদ কবির বলেন, “অবৈধ ভিওআইপির জন্য সুস্থভাবে ব্যবসা করা কঠিন হয়ে পড়ছে।”

টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুজিবর রহমান ও মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন অ্যামটব-এর জেনারেল সেক্রেটারি টি আই এম নুরুল কবির, সিটিসেলের জেনারেল ম্যানেজার নাইমুল হকসহ বিভিন্ন অপারেটরের প্রতিনিধিরা গোলটেবিলে বক্তব্য দেন



বৈঠক সঞ্চালনা করেন টিআরএনবির সভাপতি আবদুল্লাহ মামুন। ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন সেক্রেটারি মুহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম

জয় পরাজয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
February 2014
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
2425262728  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া