২৩শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

‘ট্র্যাপের শিকার’ সালাহউদ্দিন!


full_1764983981_1426398994নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ ‘ট্র্যাপের শিকার’! উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টরের বাসায় তার সঙ্গে কথিত গৃহপরিচারিকা ছিল বলে যে তথ্য এই ভবনের ভাড়াটে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) হাবীব হাসানাত ভবনের দারোয়ান আক্তার আলীকে জানিয়েছিলেন তা সঠিক নয় বলে জানা গেছে। সে আসলে গৃহপরিচারিকা নয়, একজন সুন্দরী তরুণী ও বিউটিশিয়ান। গতকাল শনিবার ওই তরুণী সম্পর্কে এ তথ্য বেরিয়ে পড়ায় এই বিএনপি নেতার আটক কিংবা নিখোঁজ হওয়া নিয়ে নতুন করে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। সুন্দরী তরুণীর ফাঁদে পড়ে বিএনপির এ নেতা নিখোঁজ হলেন নাকি আটক হলেন এ তথ্য এখন বিভিন্ন মহলে ঘোরপাক খাচ্ছে।
এদিকে বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন ও ব্যাংকার হাসানাতের ব্যবহূত দুটি ফোনের সিম ছিল দুবাইয়ের। রোমিং করে তারা এগুলো এ দেশে ব্যবহার করে আসছেন। সালাহউদ্দিনের ব্যবহৃত ফোনটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে এবং ব্যাংকার হাসানাতের ফোনটি অপরপ্রান্তে দুবাইয়ে অবস্থানরত হেলাল নামের এক ব্যক্তি রিসিভ করেন। তিনি হাসানাত নন বলে জানান।

বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন আহমেদের স্ত্রী হাসিনা আহমেদ দাবি করে আসছেন, উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টরের ১৩-বি রোডের ৪৯/বি নম্বর ভবনের দোতলা বাসা থেকে তার স্বামী সালাহউদ্দিনকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। এ প্রসঙ্গে গতকালও পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (ডিবি) মনিরুল ইসলাম বলেছেন, ডিবি বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন আহমেদকে আটক করেনি। তার সন্ধানে ডিবির একাধিক টিম কাজ করে যাচ্ছে। একইভাবে উত্তরা (পশ্চিম) থানার পুলিশও সালাহউদ্দিন আটকের অভিযোগ অনুসন্ধানে মাঠে কার্যক্রম চালাচ্ছে।

ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ডিএমডি হাবীব হাসানাতের দ্বিতীয় স্ত্রী সুমনার উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টরে দুটি বিউটি পার্লার রয়েছে। একটি বিউটি পার্লার মহিলাদের জন্য অপরটি পুরুষদের। এ পার্লারের বাইরে সুমনার বায়িং হাউসের ব্যবসাও রয়েছে। ওই বিউটি পার্লারের একজন বিউটিশিয়ান হচ্ছেন ওই সুন্দরী তরুণী। বিভিন্ন সূত্রে এমন তথ্যই পাওয়া যায়।

আটক কিংবা নিখোঁজ হওয়ার চারদিন আগে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ডিএমডি হাসানাত নিজে ড্রাইভ করে এক ব্যক্তিকে তার উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টরের ১৩-বি রোডের ৪৯/বি নম্বর ভবনের দোতলার ভাড়া বাসায় সন্ধ্যার পর নিয়ে আসেন। ভবনের দারোয়ান আক্তার আলীকে হাসানাত বলে যান যে বাসায় কাজের বুয়া ও একজন মেহমান রেখে গেলাম। প্রয়োজন হলে তুমি সহযোগিতা করো। এই কথা বলে ওই রাতে হাসানাত তার স্ত্রী সুমনাকে নিয়ে গাড়িযোগে বেরিয়ে যান। 

এর চার দিন পর গত মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে সোয়া ৯টার মধ্যে হাসানাতের উত্তরার ৩ নম্বর সেক্টরের ওই ভাড়া বাসা থেকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তার মেহমানকে মুখে গামছা বেঁধে নিয়ে যায় বলে দারোয়ান আক্তার জানান। ভবনের গেটে অপেক্ষমাণ নোয়া মাইক্রোতে তুলে ডিবি পুলিশ পরিচয়দানকারী ব্যক্তিরা তাকে নিয়ে চলে যায়। এর কিছুক্ষণ পর সুন্দরী তরুণীও (কথিত কাজের বুয়া) চলে যায়। ওই ব্যক্তিটিই (মেহমান) বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ বলে তার স্ত্রী হাসিনা আহমদ দাবি করেন। সালাহউদ্দিন নিখোঁজের গতকাল ৫ম দিন অতিবাহিত হয়। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সালাহউদ্দিনের সন্ধান পায়নি বলে জানায়। সূত্র: ইত্তেফাক

 
 
 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
আগষ্ট ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুলাই    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া