১৭ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ২রা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

adv

‘শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছেন খালেদা জিয়া’

নিজস্ব প্রতিবেদক : খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছেন বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। তিনি বলেন, এজন্য একদিকে তারা জঙ্গিদেরও মাঠে নামিয়েছেন। অন্যদিকে হত্যার পরিকল্পনা করছেন। আর বিদেশে বসে এই জঙ্গিদের মদদ দিয়ে যাচ্ছেন তারেক রহমান।
শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমীতে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।  ঢাকার প্রাক্তন মেয়র ও ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হানিফের অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, কয়েকদিন আগে বেগম খালেদা জিয়া শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন। তিনি বলেছিলেন, ‘শেখ হাসিনা মারা গেলে ইন্নালিল্লাহি বলারও লোক থাকবে না। কামরুল বলেন, কিন্তু স্পষ্ট বলতে চাই শেখ হাসিনার যদি কিছু হয় হুকুমের প্রধান আসামি হবেন বেগম খালেদা জিয়া। বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, এটা কিন্তু ১৯৭৫ সাল নয়, এটা ২০১৪ সাল। কোনো কিছু করে পার পেয়ে যাবেন না। আপনাদের হাত ভেঙে দেওয়া হবে। গুড়িয়ে দেওয়া হবে। আবার যদি শেখ হাসিনাকে হত্যার পরকিল্পনা করেন তবে সেই কালো হাত ভেঙে দেওয়া হবে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশে যে জঙ্গিবাদের উত্থান তার জনক তারেক রহমান। আর এর মূল পরিকল্পনা ছিল হাওয়া ভবন। এই কথাগুলো আমি বিএনপি নেতাদের চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলতে পারি। মুফতি হান্নান বলেন, বাংলাভাই বলেন, সমস্ত কিছু জঙ্গিবাদের উত্থান এই হাওয়া ভবনের মদদে, তারেক রহমানের পরিকল্পনায়।
তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রসঙ্গে কামরুল বলেন, ফখরুল সাহেব তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি করেন। এর কবর তো আপনারাই রচনা করেছেন। কোন নিয়মের তোয়াক্কা না করে ইয়াজউদ্দিনকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান করে। তিনি আরো বলেন, সেদিন যথেষ্ট চেষ্টা করেছেন শেখ হাসিনাকে মাইনাস করতে। বাংলাদেশে আর কোনদিন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ফিরে আসবে না। এটা একটি ডেথ ইস্যু। আরো পরিষ্কার করে বলতে চাই, ২০১৯ সালে সঠিক সময়েই নির্বাচন হবে, সেই নির্বাচনও হবে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে।
তিনি আরো বলেন, জনগণের জনমত মাপার ব্যারোমিটার তো বিএনপি নেতাদের হাতে কেউ দেয়নি। শুধুই মির্জা ফখরুলরা চিল্লাচিল্লি করেন। আপনাদের ডাকে তো জনগণ মাঠেও নামে না। এতেই বোঝা যায় জনগণ আপনাদের সঙ্গে নেই।

দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমরা যদি হানিফ ভাইয়ের আদর্শ বাস্তবায়ন করতে চাই। তবে রাজনীতির এই অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। এই বেঈমানদের সঙ্গে কোন আলোচনা নয়। তাদের বিরুদ্ধে জনগণকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।
আয়োজক সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি ড. এনামুল হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা ও সহসভাপতি এটিএম শামসুজ্জামান, বাংলাদেশ কৃষক লীগের সহসভাপতি শেখ জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
অক্টোবর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া