১৫ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

adv

লুকাকুর নৈপুণ্যে কো.ফাইনালে বেলজিয়াম

স্পোর্টস ডেস্ক : ভাগ্য মন্দ যুক্তরাষ্ট্রের। বিশ্বকাপের ণকআউট পর্বের খেলায় সমানতালে লড়াই করেও ভাগ্যের কাছে পরাস্ত হতে হয়। তাদের গোলরক্ষক টিম হাওয়ার্ড শুরু থেকেই দুর্দান্ত পারফর্ম করে দরকে আগলে রেখেছিলেন। নির্ধারিত নব্বই মিনিট বেলজিয়ামের অসংখ্য আক্রমণ ঠেকিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের এই গোলরক্ষক। কিন্তু শেষরক্ষা করতে পারেননি তিনি। অতিরিক্ত সময়ে বদলি নেমে দলকে ২-১ গোলের জয় এনে দিয়েছেন বেলজিয়ামের ফরোয়ার্ড রোমেলু লুকাকু।
৯২তম মিনিটে কেভিন ডি ব্র“ইন দলকে এগিয়ে নেয়ার পর ১০৫তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন লুকাকু। দুই মিনিট পর তরুণ জুলিয়ান গ্রিনের গোলে ব্যবধান কমায় যুক্তরাষ্ট্র।
এই জয়ের ফলে বারো বছর পর বিশ্বকাপে এসেই কোয়ার্টার-ফাইনালে পৌঁছালো মার্ক উইলমটসের দলটি। শনিবার ব্রাজিলিয়ায় শেষ আটের ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ দুইবারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা।
নির্ধারিত নব্বই মিনিটে অসংখ্য সুযোগ তৈরি করে বেলজিয়াম। কিন্তু হাওয়ার্ডের নৈপুণ্যে তার একটি থেকেও সাফল্য পায়নি এবারের আসরের 'কালো ঘোড়া' বেলজিয়াম।
অতিরিক্ত সময়ে লুকাকুর নৈপুণ্যে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় ইউরোপের দলটি। এরপর প্রচণ্ড চাপ তৈরি করে ব্যবধান কমালেও হার এড়াতে পারেনি ইয়ুর্গেন ক্লিন্সমানের শিষ্যরা।
সালভাদরের আরেনা ফন্তে নোভায় প্রথম মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ায় সুযোগ পায় বেলজিয়াম। মার্কারকে ফাঁকি দিলেও মাত্র দশ গজ দূর থেকে টিম হাওয়ার্ডের হাতে বল তুলে দেন দিভোক ওরিগি।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম সুযোগটি আসে ২১তম মিনিটে। জোজি আলটিডোরের পাস পেয়ে ১৫ গজ দূর থেকে শট নিয়েও থিবো কোর্তোয়াকে পরাস্ত করতে পারেননি ক্লিন্ট ডেম্পসি।
দুই মিনিট পর এগিয়ে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ পায় বেলজিয়াম। একদম ফাঁকায় বল পেয়ে ১২ গজ দূর থেকেও বল লক্ষ্যে রাখতে পারেননি ডি ব্র“ইন। প্রথমার্ধে এটাই ছিল শেষ সুযোগ।
৫৭তম মিনিটে বেলজিয়ামের জন্য আবারো হতাশা। টোবি অল্ডারভেইরল্ডের ক্রস ডি বক্সে খুঁজে যায় ওরিগিকে। এবার হাওয়ার্ডকে পরাস্ত করতে পারলেও বল ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে।
৭১তম মিনিটে দলকে আবারো হতাশ করেন ওরিগি। কেভিন মিরালাসের পাস ডি বক্সে লিলের এই মিডফিল্ডারকে খুঁজে পেলেও সরাসরি হাওয়ার্ডের দিকে মেরে সুযোগ নষ্ট করেন তিনি।
ছয় মিনিট পর আবারো যুক্তরাষ্ট্রের ত্রাতা হাওয়ার্ড। ওরিগির কাছ থেকে বল পাওয়া মিরালাসের সামনে ছিলেন কেবল গোলরক্ষক। কিন্তু ১২ গজ দূর থেকেও এভারটনের সতীর্থকে পরাস্ত করতে পারেননি এই মিডফিল্ডার। শেষ দশ মিনিটে আরো তিনবার বেলজিয়ামকে হতাশ করেন হাওয়ার্ড।
যোগ করা সময়ে দারুণ একটি সুযোগ আসে যুক্তরাষ্ট্রের সামনে। কোর্তোয়ার ঠিক সামনে বল পেয়ে যান ক্রিস ওন্ডোলোস্কি। অরক্ষিত এই ফরোয়ার্ড মাত্র ছয় গজ দূর থেকেও বারের ওপর দিয়ে মেরে সুবর্ণ সুযোগটি নষ্ট করেন।
অতিরিক্ত সময়ে গোলের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি বেলজিয়ামকে। ৯৩তম মিনিটে লুকাকু ডি বক্সের ভেতর খুঁজে পান ডি ব্রুইনকে। সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডারদের থেকে একটু দূরে গিয়ে কোনাকুনি শটে বল জালে জড়ান ভলসবুর্গের এই মিডফিল্ডার।
১০৫তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন লুকাকু। ডি বক্সে ডি ব্র“ইনের পাস থেকে হাওয়ার্ডকে পরাস্ত করেন চেলসি থেকে ধারে এভারটনে খেলা এই ফরোয়ার্ড। দুই মিনিট পর গোল করে ব্যবধান কমান গ্রিন। মাইকেল ব্র্যাডলির ক্রসে বায়ার্ন মিউনিখের তরুণ মিডফিল্ডারের ভলি ঝাঁপিয়ে পড়েও ঠেকাতে পারেননি কোর্তোয়া।
পরের মিনিটেই সমতা ফেরানোর দারুণ একটি সুযোগ পেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু এবার আর কোর্তোয়াকে ফাঁকি দিতে পারেননি জার্মেইন জোন্স।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
অক্টোবর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া