১৫ই জুলাই, ২০১৯ ইং | ৩১শে আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

মায়ের দুধ কতক্ষণ সংরক্ষণে রাখা যায়?

ডেস্ক রিপোর্ট : দেশে কর্মজীবী নারীদের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে। পুরুষের পাশাপাশি নারীও ঘরে বাইরে সমান তালে কাজ করে যাচ্ছেন। গর্ভাবস্থায় ও সন্তান জন্মের পর দেখভালের জন্য পর্যাপ্ত সময় না পাওয়া। তবে নারীদের কর্মজীবনের পাশাপাশি মাতৃত্বের দায় থেকে স্বামীর চেয়ে সংসারে তাদের খেয়াল বেশি রাখতে হয়।

সম্প্রতি ব্রিটিশ আমেরিকান ট্যোবাকো বাংলাদেশ তাদের কর্মরত নারীদের জন্য নয় মাস মাতৃত্বকালীন ছুটি ঘোষণা করেছে। বিএটি বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেহজাদ মুনিম এক অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেন।

যদি সরকারিভাবে আমাদের দেশে মা হওয়ার পরে নারীদের ৬ মাসে ছুটি দেওয়ার বিধান রয়েছে। সন্তান জন্মের পরে তাতে লালনপালনসহ তাকে বুকের দুধ খাওয়ার জন্য অবশ্যই সময় দেয়া প্রয়োজন।

বিশেষ করে একজন নারী যখন মা হতে চলেন তখন তিনি নানা সমস্যার সম্মুখীন হন। সন্তান পৃথিবীর আলো দেখার পর তাকে প্রতিনিয়ত ঘরে ও বাইরে প্রায় যুদ্ধ করে চলতে হয়। সন্তান প্রসবের পর তাকে মায়ের দুধ খাওয়ানো বাধ্যতামূলক।

তবে কর্মজীবী মায়েদের পক্ষে এটি কঠিন কাজ। তবে এর সমাধানও রয়েছে। কর্মজীবী নারীরা ঘরে না থেকেও ১২ ঘণ্টা শিশুকে বুকের দুধ খাওয়াতে পারেন। মায়ের দুধ হাত দিয়ে চেপে বের করে বোতল বা পাতিলে সংরক্ষণ করতে পারেন। এই দুধ ফ্রিজে রাখলে ১২ ঘণ্টা পর্যন্ত ভালো থাকে। এছাড়া ফ্রিজে না রাখলে ৩ ঘণ্টা পর্যন্ত ভালো থাকবে।

মনে রাখবেন শিশুকে বাইরের কেনা দুধ না খাওয়ানো ভালো। একটি শিশুর জন্মের পর শালদুধ খাওয়ানো যেমন জরুরি তেমনি তার ৬ মাস বয়স পর্যন্ত অবশ্যই মায়ের দুধ খাওয়াতে হবে। ৬ মাসের পর থেকে বুকের দুধের পাশাপাশি তাকে বাড়তি খাবার দিন।

বুকের দুধ আপনার শিশুর মেধা বিকাশে সহায়তা করে। এছাড়া তার সব ধরনের পুষ্টির চাহিদা পূরণ করে।

গাইনি কনসালট্যান্ট,সেন্ট্রাল হাসপাতাল লিমিটেড। -যুগান্তর

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
জুলাই ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া