২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং | ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

adv

তারকাদের নিজের নামে শোনা সেরা গুজব

বিনোদন ডেস্ক : তারকাদের নামে প্রায় প্রায়ই গুজব ছড়ায়। কখনো তা সত্য হয় কখনো মিথ্যে। অনেকে এমন গুজবকে পাত্তাও দেয় না। কিন্তু সেসব গুজবে তাদের কম ভুগতে হয় না। আর সেই গুজবের খোঁজ নেয়া হয়েছে তারকাদের কাছ থেকে।

বিদ্যা সিনহা মিম : বিয়ে নিয়ে আমার প্রায় প্রায়ই গুজব রটে। একাধিকবার আমার নামে গুজব রটেছে। কোন গুজব শুনে হেসেছি। কোনটির জন্য নিজেরই লজ্জা লেগেছে। এই ধরুন ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে একবার গুজব রটে আমার ঘনিষ্ঠ কার সঙ্গে ভিডিও বের হয়েছে। একদিন সকালে ঘুম ভাঙলো পরিচিত একজনের কলে। সে বলছে সব জায়গায় রটে গেছে তোর ভিডিও বের হয়েছে। আমি সকালবেলা বুঝে উঠতে পারলাম না কি ভিডিও বের হয়েছে।

পরে শুনলাম কে বা কারা যেন কথা রটিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কোন প্লেয়ারের সঙ্গে আমার ঘনিষ্ঠ ভিডিও বের হয়েছে। এখন আমি চাইলেই তো কারো মুখ চেপে রাখতে পারবো না। প্রথম প্রথম এ নিয়ে অনেকে কল দিয়েছে। একটা সময় নিজেরাই বুঝতে পেরেছে যে মিথ্যে কথা ছড়ানো হয়েছে। তবে সর্বশেষ আমাকে আর তাহসান ভাইকে নিয়ে যে গুজবটি ছড়ানো হয়। সেটা নিয়ে খুব বিব্রত হয়েছি। অনেক সাংবাদিক এ নিয়ে প্রশ্নও করেছে। যেটা আসলে উচিত হয়নি। তাহসান ভাইয়ের যখন ডিভোর্স হয়ে যায়। তখন আমরা বেশকিছু কাজ করি। আর সেটা থেকেই এমন কথা রটে যায়।

শাবনুর: সব নায়িকার মত আমারও একাধিকবার বিয়ের খবর রটেছে। একাধিক বয়ফ্রেন্ডের খবর রটেছে। আমার পরিচিত সাংবাদিক ভাইয়েরা যে কত রস দিয়ে তা লিখেছে। সেটা মনে হলে এখনো হাসি আসে। তাছাড়া একটা গুজব তো এখনো ছাড়ে না, সালমান শাহর সঙ্গে আমার সম্পর্ক ছিল। এখন আর এটা বিরক্ত করে না। শুনতে অভ্যস্থ হয়ে গেছি। আগে প্রতিবাদ করতাম। এখন আর এই কথা নিয়ে প্রতিবাদেরও ইচ্ছে হয় না।

অপু বিশ্বাস: শাকিব খানকে বিয়ে করেছি এটাই আমার জীবনের সবচেয়ে বড় গুজব। কারণ যখন প্রেম করতাম তখনও শুনেছি আমরা গোপনে বিয়ে করেছি। যখন বিয়ে করলাম তখনও শুনছি আমরা বিয়ে করতে যাচ্ছি। যখন বাচ্চা হওয়ার জন্য আমি আড়ালে গেলাম। তখনও শুনছি আমরা বিয়ে করতে যাচ্ছি। নানা সময়ে নানা কথা বলা হয়েছে। সর্বশেষ যে গুজবটা আমোকে মর্মাহত করেছে তা হলো বাপ্পীর সঙ্গে প্রেমের গুজব। এটা ছড়ানো উচিত হয়নি।

সাবিলা নূর: খুব বেশিদিন আগের কথা নয়। একটি আপত্তিকর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে। সেটা হয়তো এখনো সবার মনে আছে। যেখানে একজন টিনএজ তরুণীকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখা যায়। ছড়িয়ে পড়ে এই তরুণীটি সাবিলা নূর। কোনো ধরনের যাচাই-বাছাই ছাড়াই ভিডিওটির সঙ্গে আমার নাম জড়িয়ে গেছে এবং প্রায় সবখানে ভাইরাল হয়ে পড়ে ভিডিওটি। যা আমাকে রীতিমতো মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে।

মিডিয়ায় কাজ করি বলেই কি এমন গুজব রটানো হয়? আমি তো মিডিয়ায় কাজ করা বন্ধই করে দিতে চেয়েছিলাম। সকলে বুঝালো যে এভাবে আমি সরে যেতে পারি না। দুষ্ট লোকদের জন্য আমার ভক্তরা কেন আমার কাজ দেখতে পারবে না। পরবর্তীতে তো নিয়মিত হলাম। তবে সালমান মুক্তাদিরকে বিয়ে করছি একটা গুজব রটেছিল। যা নিয়ে আমরা সবাই অনেক মজা করেছি।

ববিতা: আমার সঙ্গে রাজ্জাক ভাইর প্রেমের গুজব বেশ রটেছিল। আমিতো বয়সে ছোট ছিলাম। সবার সঙ্গে অনেক ইয়ার্কি ফাজলামি করতাম। সাংবাদিকরা কিনা এক প্রশ্ন করতো। আমি হেয়ালি করে উত্তর দিতাম। অমনি তা নিয়ে রটে যেত কত কথা। তা আবার রাজ্জাক ভাইকে দেখিয়ে হাসতাম। রাজ্জাক ভাই তো খুব ধমক দিতেন, রেগে যেতেন। কিন্তু একটিা সময়ে বুঝলাম এটা করা ঠিক হচ্ছে না। তখন এসব গুজবের নিজেই প্রতিবাদ করতাম। তখন তো এত স্যোশাল মিডিয়া ছিল না। যা রটতো পত্রিকার মাধ্যমেই। তা নিয়ে আবার এফডিসিতে আলোচনা চলতো।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
ফেব্রুয়ারি ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জানুয়ারি    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া