১৮ই জানুয়ারি, ২০১৯ ইং | ৫ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

adv

‘রণবীর আমার সামনে আসলে শান্ত হয়ে যায়’

বিনোদন ডেস্ক : বর্তমান সময়ে ভারতের সবচেয়ে আলোচিত তারকা দীপিকা পাড়ুকোন। গত বছর ‘পদ্মাবত’ ছবির সফলতা দিয়ে শুরু। এরপর বিয়ে। বছর শেষে অর্জন করেছেন এশিয়ার সেরা আবেদনময়ী তারকার খেতাব। ‘ফোর্বস’ ম্যাগাজিনের বিচারে হয়েছেন বলিউডের সবচেয়ে ধনী তারকা। কিছুদিন আগে বিজ্ঞাপনের চাহিদার দিক থেকেও সেরা হয়েছেন। এমন সমীকরণে বলিউডের সেরা নারী তারকা তো বটেই, ওজনদার অনেক পুরুষ তারকাকেও ছাড়িয়ে গেছেন দীপিকা। সম্প্রতি তিনি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘ফিল্মফেয়ার’-এর মুখোমুখি হয়ে নিজের ব্যক্তিগত ও পেশাগত বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেছেন। সাক্ষাৎকারের কিছু অংশ থাকল ‘বাংলা ইনসাইডার’-এর পাঠকদের জন্য

বিয়ে মানেই ক্যারিয়ার শেষ, আমরা কি এমন চিন্তা-ভাবনা থেকে সরে আসতে পেরেছি?

আশা করি সরে এসেছি। অনেকেই তো বিয়ে করেছে। তাঁর মানে ইন্ডাস্ট্রি কি এক জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে? সব মেয়ে কি চলে গেছে? আমার মনে হয় অতীতে ব্যাপারটা ছিল সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত। বিয়ে করে সংসারে মনযোগী হয়েছেন বলে অনেকের ক্ষেত্রে অভিনয়টা নিয়মিত করা হয়নি। কিন্তু আমার মনে হয়, আমরা একুশ শতকের মেয়েরা এমনটি মনে করি না যে, বিয়ে করলেই ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাবে।

বিয়ে কি ভবিষ্যতে আপনার অভিনয়ে বাজে প্রভাব ফেলবে?

না, এটা কেন হওয়া উচিত? জীবন তার স্বাভাবিক নিয়মেই চলবে। পাঁচ বছর আগে আমি যে ধরনের ছবিতে অভিনয় করতাম; আর এখন যা করি বা ভবিষ্যতে যা করবো, তা সম্পূর্ণ আলাদা। আর এটা শুধুমাত্র আমার সৃজনশীলতার পার্থক্যের কারণে হয়েছে। এর সঙ্গে বিয়ের কোনো সম্পর্ক নেই।

বিয়ের পর নিজের মধ্যে কোনো পরিবর্তন লক্ষ্য করেছেন?

নিজের ভারসাম্যতা এসেছে। নিজকে এখন সুরক্ষিত এবং নিরাপদ মনে হয়। কারণ প্রেম যত গভীর ও দীর্ঘই হোক না কেন, তার কোনো নিশ্চয়তা নাই।

রণবীর সিং আর আপনি তো চারিত্রিক বৈশিষ্টের দিক থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। রণবীর চঞ্চল আর আপনি শান্ত…

(হাসি) অনেকেই জানে না যে, রণবীর আমার সামনে আসলে শান্ত হয়ে যায়। তখন আমি বলি, এখন কোথায় তোমার সেই উচ্ছলতা? তখন সে বলে, আমি এনার্জি সঞ্চয় করছি, কারণ সামনে ইভেন্ট আছে।

সৃজনশীলতার ক্ষেত্রে একে অপরের কাছ থেকে কতটা অনুপ্রাণিত হন?

কখনো আমরা সিদ্ধান্ত একে অপরের উপর চাপিয়ে দিই না। আমরা হয়তো বিভিন্ন প্রজেক্ট নিয়ে আলোচনা করি। কিন্তু দিন শেষে আমি এবং রণবীর আলাদাভাবে সিদ্ধান্তে পৌঁছাই। অভিনয়ের ক্ষেত্রেও একই রকম।

সংসারের ‘রিমোট’ থাকে কার হাতে?

অবশ্যই আমার হাতে। আমার মনে হয় রণবীরও একই কথা বলবে।

রণবীরের ফোনের পাসওয়ার্ড জানেন?

উম্মম্মম……না।

তার মানে রণবীরের ফোন ঘাঁটেন না?

আমার ঘাঁটার দরকার নাই।

রণবীরের কাছ থেকে পাওয়া এই পর্যন্ত সেরা উক্তি কোনটি মনে হয়েছে আপনার কাছে?

অনেক কিছুই বলেছে। সত্যি বলতে, কথা বার্তায় সে খুব উদার। তাঁকে ভালোবাসারা এটাও অন্যতম একটা কারণ। কিছু বছর আগে, যখন আমি তাঁর থেকেও বেশী রোজগার করি, তখনো সে আমাকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবেনি। বরং নিজের কাজ করে গেছেন। আমাকে সাহস দিয়েছে। কখনোই মনে কিছু চাপিয়ে রাখেন না। কিছুদিন আগে এক সাক্ষাৎকারে সে বলেছিল, আমি তাঁর জীবনে ভারসাম্যতা এনেছি। আমার কারণেই নাকি সে শক্ত হয়ে দাঁড়াতে পেরেছে।

আপনি তো ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত অভিনেত্রী…

পারিশ্রমিকের বৈষম্যতার দিক থেকে এই অর্জন আমাকে স্বস্তি দেয়। নারী হিসেবে গর্ববোধ করি। কারণ আমি এটা কাজের মাধ্যমে অর্জন করে নিয়েছি, দাবী করিনি।

অনেক পুরুষ তারকার চাইতেও আপনি বেশী পারিশ্রমিক নেন। এটা কি অন্যন্য অভিনেত্রীদের অধিকার আদায়ে শক্তি জোগাবে?

অবশ্যই। আমি চাই অন্যরাও এগিয়ে আসুক। আমি শুধুমাত্র নিজের জন্যই করছি না। এই ধারাটা যেন সব সময় অব্যাহত থাকে, সেটার জন্য কথা বলে যাব কাজ করে যাব। কাউকে না কাউকে তো এগিয়ে আসতে হবে।

সম্প্রতি এশিয়ার সেরা আবেদনময়ী নারীর খেতাব অর্জন করেছেন। এগুলো আপনার জীবনে কতটা মানে বহন করে?

সত্যি বলতে, ওই তালিকায় আমি নিজেকে দেখতে চাইনি। আমাকে এই ট্যাগ দিয়ে সংজ্ঞায়িতও করা যাবে না, যতক্ষণ না শারীরিক সৌন্দর্যের সঙ্গে মন ও ব্যক্তিত্ব মিলে যাচ্ছে।

সামনে আপনার কি ছবি আসছে?

পরিচালক মেঘনা গুলজার অ্যাসিড আক্রান্ত নারী লক্ষ্মী আগারওয়ালকে নিয়ে ছবি নির্মাণ করছেন। এই ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছি।

সুপারহিরো ভিত্তিক সিনেমায় অভিনয় করছেন না কি…

হ্যাঁ, আমি আর আমার এক বন্ধু বিষয়টি নিয়ে ভাবছি। এখনও কিছুই ঠিক হয়নি। সবে মাত্র বীজ বপন করেছি, তদারকি করছি। দেখি কি হয়।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
জানুয়ারি ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« ডিসেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া