১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

adv

সুযােগ বুঝে রিয়াল থেকে বেতন বাড়িয়ে নিলেন মড্রিচ!

স্পাের্টস ডেস্ক : মুখের কথায় কাজ না হলে আঙুলটা একটু বাকা কর। লুকা মড্রিচ করেছেন ঠিক সেই কাজটাই। রিয়াল মাদ্রিদের কর্তারা তার বেতন-ভাতা না বাড়ানোয় ক্লাব ছাড়ারই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন মড্রিচ। ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার রিয়াল ছেড়ে যোগ দিতে চেয়েছিলেন ইন্টার মিলানে। এই আঙুল বাকা করায় কাজও হয়েছে। পাকে পড়ে ঠিকই মড্রিচের বেতন বাড়াতে বাধ্য হলো রিয়াল মাদ্রিদ।

বেতন বৃদ্ধির খসরা তৈরি করে গতকালই মড্রিচকে নতুন চুক্তির প্রস্তাব দিয়েছে রিয়াল। নিজের চাওয়া পূরণ হওয়ায় মড্রিচও রিয়ালের সঙ্গে নতুন চুক্তি করতে রাজি হয়েছেন। মানে ইন্টার মিলানে যাওয়ার বাসনা বিসর্জন দিয়ে তিনি থাকছেন রিয়াল মাদ্রিদেই।

এই বেতন-ভাতা বৃদ্ধির দাবি-দাওয়া না মানাতেই রিয়াল ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দিয়েছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ সুপারস্টার চলে যাওয়ায় এমনিতেই চাপের মুখে রিয়াল। ৫ বারের ব্যালন ডি’অর জয়ীর যোগ্য বিকল্প এখনো খুঁজে পায়নি মাদ্রিদ জায়ান্টরা। রোনালদোর মানের কাউকে আনতে পারবে বলেও মনে হচ্ছে না।

এই অবস্থায় মাঝমাঠের অন্যতম বড় সৈনিক লুকা মড্রিচও রিয়াল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন। বলা যায় ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে রয়েছেন। ক্লাব রিয়ালের পাশাপাশি ক্রোয়েশিয়া জাতীয় দলের হয়েও মাতিয়েছেন বিশ্বকাপ। দেশকে রানার্সআপ করার পাশাপাশি নিজে জিতে নিয়েছেন টুর্নাসেন্টের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার সোনার বল।

একদিকে সেরা ফর্ম। অন্যদিকে বয়সও হয়ে গেছে ৩২। এখন বেতন না বাড়লে কখন! কিন্তু বারবার দাবি করা সত্ত্বেও রিয়াল তার বেতন বাড়াতে রাজি হচ্ছিল না। মড্রিচ তাই বাধ্য হয়েই আঙুল বাকা করেন। ক্লাব ছাড়ার পাকা সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন। স্ত্রীর মাধ্যমে তিনি নিজেই আগ বাড়িয়ে ইন্টার মিলানকে চুক্তির প্রস্তাবটা প্রস্তাব দিয়েছিলেন। ইন্টার মিলানও মড্রিচের মতো একজন বিশ্বসেরা মিডফিল্ডারকে দলে ভেড়ানোর সুযোগটা কাজে লাগাতে বিশেষ আগ্রহী হয়ে উঠে। মড্রিচকে বার্ষিক ১০ মিলিয়ন ইউরো বেতন দেওয়ার প্রস্তাবও দেয় তারা।

দুই পক্ষ এক হয়ে কথা-বার্তা পাকা করার প্রক্রিয়ায় শুরু করে দেন। তলেতলে চালিয়ে যান আলোচনা। কাজটা তারা এতোটাই গোপনীয়তার সঙ্গে করেন যে, রিয়াল মাদ্রিদ বুঝতেই পারেনি। ক্লাব রিয়ালের চেয়ে বিষয়টি বরং আগে বুঝতে পারে গণমাধ্যম! ইতালিয়ান ক্রীড়া দৈনিক গাজেত্তা দেল্লো স্পোর্তই খবরটা দেয় প্রথমে।

অবশ্য গাজেত্তা দেল্লো স্পোর্তের খবরটাকে প্রথমে গুজব বলে উড়িয়ে দেওয়ারই চেষ্টা করে রিয়াল। কিন্তু দ্রুতই তারা বুঝতে পারে অবস্থা বেগতক। কারণ, মড্রিচের সঙ্গে কথা-বার্তা পাকা করার পর ইন্টার মিলান রিয়াল কর্তাদের সঙ্গেও যোগাযোগ শুরু করে দেয়। ব্যস, টনক নড়ে যায় রিয়ালের। অস্থির হয়ে উঠে মড্রিচের চলে যাওয়া ঠেকানোর জন্য।

তারা এটাও বুঝতে পারে মড্রিচকে ধরে রাখতে হলে উপায় একটাই, বাড়াতে হবে বেতন-ভাতা। দ্বিতীয় কোনো অপশন নেই। বাধ্য হয়েই গতকাল শুক্রবার মড্রিচের সঙ্গে জরুরী বৈঠকে বসে রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতিসহ অন্য কর্তারা। ওই বৈঠকেই মড্রিচকে বেতন-ভাতা বৃদ্ধির নতুন প্রস্তাব দিয়েছেন রিয়াল কর্তারা। নতুন প্রস্তাবের খসরায় উল্লেখ্য করা হয়েছে, অধিনায়ক সার্জিও রামোসের সমান বেতন পাবেন মড্রিচ।

রিয়ালে এতোদিন মড্রিচের বার্ষিক বেতন ছিল ৬৫ লাখ ইউরো। নতুন চুক্তির পর তার বেতন ঠিক কত হবে, সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, অঙ্কটা হবে ৮৫ লাখ ইউরো। কারণ, অধিনায়ক রামোসের বার্ষিক বেতনের অঙ্কটা নাকি এমনই।

যদি অঙ্কটা ৮৫ লাখ ইউরোও হয়, তারপরও তা ইন্টার মিলানের প্রস্তাবিত বেতনের অঙ্কের চেয়ে ১৫ লাখ ইউরো কম। কিন্তু তারপরও মড্রিচ রিয়ালে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্তই নিয়েছেন। এর পেছনে কারণ রয়েছে বেশ কয়েকটি। প্রথমত সেই ২০১২ সাল থেকে রিয়ালে আছেন তিনি।

ক্লাবটির প্রতি অগাধ ভালোবাসাই জন্মেছে তার মনে। দ্বিতীয়ত খ্যাতি, যশ, প্রতিপত্তি, দলীয় শক্তি, ঐতিহ্য-সবদিক থেকেই ইন্টার মিলানের চেয়ে যোজন এগিয়ে রিয়াল। রিয়ালে থাকা মানে শিরোপা জয়ও নিশ্চিত। আর বেশি বেশি শিরোপা জেতা মানেই বেশি বেশি বোনাস পাওয়াও নিশ্চিত।

মড্রিচ তাই নতুন চুক্তি করে রিয়ালে থেকে যাওয়ারই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। চুক্তিটা কার্যকর হওয়ার পর রিয়ালে তার চেয়ে বেশি বেতন পাবেন কেবল একজনই। তিনি গ্যারেথ বেল। মানে চুক্তিটা কার্যকর হওয়ার পর থেকে রামোসের সঙ্গে তিনিই হবেন রিয়ালের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেতনভোগি খেলোয়াড়। রিয়ালের মতো বিশ্বসেরা ক্লাবের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেতনভোগি খেলোয়াড় হওয়াটাও কি কম সম্মানের!

যাই হোক, ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো দীর্ঘ এক বছরেও বেতন-বৃদ্ধির ব্যাপারে রিয়াল কর্তাদের রাজি করাতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত তাকে চলেই যেতে হয়েছে। কিন্তু রিয়ালকে বাগে ফেলে মাত্র কয়েক দিনেই নিজের দাবি আদায় করে ছাড়লেন মড্রিচ। এর মাধ্যমে ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার যেন বুঝিয়ে দিলেন মাঠে ফুটবল পায়ের মতো মাঠের বাইরে নিজের অধিকার আদায়েও দারুণ কুশলী তিনি। অস্ত্রটা হানতে পারেন মোক্ষম সময়ে।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
আর্কাইভ
ডিসেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« নভেম্বর    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া