১৫ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

adv

ঋণ কারসাজিতে ক্ষতিগ্রস্ত সৎ উদ্যোক্তারা : বিটিএমএ

RINনিজস্ব প্রতিবেদক : অনেকে ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে তা পরিশোধ না করায় সৎ ও ভাল ব্যবসায়ীরা ঋণ পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেছে বস্ত্র খাতের সংগঠন বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশন (বিটিএমএ)। সংগঠনটি বলছে, অনেক ব্যবসায়ী ব্যাংকের ঋণ নিয়ে নিয়মিত পরিশোধ করে না। এর প্রভাব পড়ে ভাল ব্যবসায়ীদের ওপর। ঋণ নিতে গিয়ে তারা নানা সমস্যায় পড়েন। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ব্যাংক তাদের ঋণ দেয় না। এতে সৎ উদ্যোক্তারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর পান্থপথে বিটিএমএর কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন সংগঠনটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন।

সম্প্রতি প্রকাশিত ঋণ খেলাপিদের অধিকাংশই বস্ত্র খাতের তাই এদের কারণে এ খাতের অন্য ব্যবসায়ীদের ঋণ পেতে কোনো সমস্যা হয় কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে বিটিএমএর সভাপতি বলেন, ‘এটাই আমরা বলতে চাচ্ছি। ঋণ অনিয়মকারীদের কারণে ভাল ও সৎ ব্যবসায়ীরা ঋণ পান না। যারা ঋণ নিয়ে নিয়মিত পরিশোধ করে তাদের ঋণ পুনর্গঠন, রেয়াত, সুদ মওকুপ ও সময়মত ঋণ দেয়া হয় না।’

১৫তম ঢাকা আন্তর্জাতিক টেক্সটাইল অ্যান্ড গার্মেন্ট মেসিনারী প্রদর্শনী (ডিটিজি) উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

মোহাম্মদ আলী খোকন বলেন, দেশে এটা একটা অদ্ভুত নিয়ম। যারা ঋণ নিয়ে পরিশোধ করে না তাদের পুনরায় ঋণ দেয়া হয়। অথচ যারা নিয়মিত পরিশোধ করে তাদের ঋণ পেতে বেগ পেতে হয়।

দেশে আমদানি বেড়েছে, কিন্তু এই আমদানির পেছনে অর্থপাচার হয় কি না তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছে অনেকে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে খোকন বলেন, ‘দুর্বৃত্তরাই অর্থপাচারের সঙ্গে জড়িত। বস্ত্র খাতে যেসব ঋণ অনিয়মকারি রয়েছে, কিংবা অর্থপাচারের সঙ্গে জড়িত তাদের কালো তালিকাভুক্ত করা হবে। বিটিএমএ থেকে তাদের সদস্য পদ বাতিলের বিষয়েও উদ্যোগ নেয়া হবে।

গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংকটে শিল্প কারখানাগুলোতে উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে উল্লেখ করে বিটিএমএর সভাপতি বলেন, ‘সরকার এলএনজি আমদানি করতে যাচ্ছে। এলএনজির দাম যেন সহনীয় পর্যায়ে থাকে আমরা সরকারের সেই অনুরোধ জানাচ্ছি।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বস্ত্র খাতে বিনিয়োগের পরিমাণ প্রায় ৬ শ কোটি ডলার। এ খাতের আরও প্রসারের জন্য আগামী ৮-১১ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চার দিনব্যাপী প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। বিটিএমএ ও ইয়র্করস ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিং সার্ভিস কোম্পানি লিমিটেড যৌথভাবে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করবে। প্রদর্শনীটিতে ৩৬টি দেশের ১ হাজার ১শ এক্সিবিটর তাদের পণ্য প্রদর্শন করবে। প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে বস্ত্র খাতে ১০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল দেয়ার দাবি জানানো হয়।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
অক্টোবর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া