৯ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

adv

রিজার্ভ থেকে ঋণ নেয়া যায় না, আবার আইনেও নেই, বললেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর

ডেস্ক রিপাের্ট : অর্থনীতিবিদ ড. আহসান এইচ মনসুর বলেন, আমদানি ব্যয় মিটানো ও বৈদেশিক ঋণের সুদ পরিশোধে রিজার্ভের অর্থ ব্যবহার করা যায়। দেশিয় কোন প্রকল্পে এই অর্থ ব্যবহার করা যায় না। সরকার অভ্যন্তরীণ সমস্ত লেনদেন টাকায় করে। বিদেশি যে অর্থকে রিজার্ভ বলা হচ্ছে তা টাকা দিয়ে কিনে নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর বিপরীতে আবার টাকাই ছাড়তে হবে। তাতে মূল্যস্ফীতি চরম আকার ধারণ করবে।

বৈদেশিক ঋণ না নিয়ে দেশিয় নানা প্রকল্পে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে ঋণ নেয়ার জন্য চিন্তা করা হচ্ছে বলে পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মূদ্রা লেনদেনের যে আইন রয়েছে তাতে রিজার্ভের অর্থ অভ্যন্তরীণ খাতে ব্যবহার নিষেধ। সরকার বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকল্প নিতে পারে। অর্থমন্ত্রণালয় ট্রেজারি বন্ডের বিপরীতে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে টাকা নিতে পারে। ভারতে রিজার্ভতো প্রায় সাড়ে ৫০০ বিলিয়ন। তারা এরকম করার চিন্তাও করে না। সরকার যদি এরকম চিন্তা করে তবে আইন পরিবর্তন করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তহবিলকে জাতীয় ট্রেজারিতে স্থানান্তর করতে পারে।

অর্থনীতিবিদ ও সাবেক এনবিআর সদস্য আমিনুর রহমান বলেন, সরকার আর্থিক সংকটে রয়েছে। রাজস্ব আয় তেমন নেই। বৈদেশিক ঋণেও তেমন সাড়া পাচ্ছে না। এ অবস্থায় অর্থসংস্থানের জন্য হয়তো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছ থেকে আরও প্যাকেজের কথা ভাবছে সরকার। ৩ মাসের বৈদেশিক মূদ্রার রিজার্ভ রাখতে হয়। বাকি রিজার্ভ দিয়ে হয়তো কোন কিছু আমদানি করতে চাইছে সরকার।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
July 2020
M T W T F S S
« Jun    
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া