২০শে মে, ২০২০ ইং | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

adv

যৌনপল্লী থেকে শতাধিক নারীকে উদ্ধার করে নেপাল পৌঁছে দেন সুনীল শেঠী

বিনােদন ডেস্ক : সুনীল শেঠি। বড়পর্দায় অনেকবার নায়ক হয়েছেন, ভিলেনের চরিত্রেও দেখা গেছে। অনেকে জানেন না, বাস্তব জীবনেও তিনি হিরো। যৌনপল্লী থেকে উদ্ধার হওয়া শতাধিক তরুণীকে বাড়ি ফিরিয়ে দেওয়ার কাণ্ডারী ছিলেন সুনীল।

১৯৯৬ সালের একদিন মহারাষ্ট্রের কামাঠিপুরা যৌনপল্লীতে পুলিশ আচমকাই হানা দেয়। সাড়ে চারশ’র বেশি নারীকে সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়, যাদের বেশিরভাগেরই বয়স ১৪ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। প্রায় প্রত্যেককেই জোর করে দেহ ব্যবসায় নামানো হয়েছিল, বেশিরভাগই তখন ছিল নাবালিকা।

উদ্ধার হওয়া ১২৮ জন ছিলেন নেপালের বাসিন্দা। তাদের কাছে ছিল না বয়সের প্রমাণ ও পাসপোর্ট। নেপাল সরকারও তাদের ফিরিয়ে নিতে পয়সা খরচ করতে নারাজ ছিল।

আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, যখন সবাই প্রায় বাড়ি ফেরার আশা ছেড়ে দিয়েছিল ঠিক তখনই ত্রাতার ভূমিকায় আবির্ভাব হয় সুনীলের। ওই সব নারীদের জন্য বিমানের ব্যবস্থা করেন। তাদের নিরাপদে বাড়ি পৌঁছার পুরো তদারকির ভার নিজের কাঁধে নেন বলিউডের এই নায়ক।

সুনীলের শাশুড়ি বিপুলা কাদরির একটি এনজিও ছিল। নিজে সমস্ত খরচ বহন করলেও এই ঘটনার সম্পূর্ণ ক্রেডিট তিনি দেন মুম্বাই পুলিশ ও শাশুড়ি পরিচালিত সংস্থাকে।

শুধু তাই নয়, মিডিয়ার কাছেও এ ব্যাপারে টুঁ শব্দটি করেননি। পরবর্তীকালে এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ওই সব নারীর নিরাপত্তা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল। যদি মিডিয়াকে এর মধ্যে জড়াতেন তা হলে তাদের পরিচয় প্রকাশ্যে চলে আসার আশঙ্কা ছিল।

ওই সব নারীদের একজন চারিমায়া তামাং। নেপালের এই বাসিন্দা সুনীলের উপকার ভোলেননি। সম্প্রতি চারিমায়াই সুনীলের এই বিশাল কর্মকাণ্ডের কথা জানান মিডিয়ায়। কিছুদিন আগে নিজের এনজিও খুলেছেন এই নারী। পাচার হয়ে যাওয়া নিষ্পাপ মেয়েদের রক্ষা করাই এখন তার সংগঠন ‘শক্তি সমূহ’-এর কাজ। চারিমায়া জানান, সুনীলের সঙ্গে তার এখনো যোগাযোগ আছে।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
May 2020
M T W T F S S
« Apr    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া