১২ই জানুয়ারি, ২০২০ ইং | ২৯শে পৌষ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

সিটি নির্বাচনের প্রচারণায় মন্ত্রী ও এমপি দরকার নেই, দুই প্রার্থীই যথেষ্ট: মির্জা ফখরুলকে ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের দেওয়া বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচনী প্রচারে বিএনপিকে মোকাবিলায় মন্ত্রী-এমপি নয়, ঢাকার দুই প্রার্থীই যথেষ্ট।

রোববার (১২ জানুয়ারি) ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

শনিবার মির্জা ফখরুল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদেরের উদ্দেশে বলেন, ‘আইন মেনে মন্ত্রিত্ব ছেড়ে নির্বাচনের প্রচারে আসুন। এর আগে নির্বাচন কমিশনের আইনের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের লেছিলেন, ‘যদি ফখরুল ইসলাম নির্বাচনের প্রচারণায় অংশ নিতে পারেন, তাহলে আমি পারবো না কেন।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ঢাকা সিটিতে বিএনপিকে মোকাবিলা করতে আওয়ামী লীগের ক্লিন ইমেজের দুই প্রার্থীই যথেষ্ট। এর জন্য মন্ত্রী কিংবা সংসদ সদস্যের (এমপি) প্রয়োজন নেই।’

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্য প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি একবারের জন্যও কি আচরণবিধি লঙ্ঘন করার কোনো কাজ করেছি? সমাবেশে অংশ নিয়েছি? তাহলে মির্জা ফখরুল সাহেব কেন এই অবান্তর প্রশ্নটা করতে গেলেন? আমি তাকে বলবো, আপনার চ্যালেঞ্জ করা লাগবে না। আপনি এমপি পদ ছেড়ে দিয়েছেন, আবার আরেকজনকে বানিয়েছেন। আপনি নিজে এমপি হয়ে পদত্যাগ করে একটা নাটক করেছিলেন। সেই নাটকে আবার আরেকজন অংশ নিয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এখানে চ্যালেঞ্জর কোনো বিষয় নেই। যদি চ্যালেঞ্জ বলেন তাহলে বলবো, আমাদের মন্ত্রী-এমপিদের প্রয়োজন হবে না।

দুই সিটিতে আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা তোফায়েল আহমেদ ও আমির হোসেন আমুর নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব নিয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বক্তব্যের প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে কাদের বলেন, ‘ইসি যে কথা বলেছে সেই সিদ্ধান্তের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করি না। এখানে আমাদের আরও রাজনৈতিক কাজ আছে। সেগুলো তারা করবেন। তারা ক্যাম্পেইনে অংশ নেবেন না। নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন হবে, তেমন কোনো কাজে তারা অংশ নেবেন না। অহেতুক কোনো বিতর্ক আমরা সৃষ্টি করতে চাই না।’

কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শীতার্ত মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত আমরা সরকারি-বেসরকারিভাবে ৪৫ লাখ শীতবস্ত্র বিতরণ এবং তিন কোটি টাকার মতো নগদ অর্থ প্রদান করতে পেরেছি।’

আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের আগে শুরু হওয়া জেলা সম্মেলনের অসমাপ্ত কাজ আগামী ৭ মার্চের আগে শেষ করার জন্য নির্দেশ দেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘যেসব জেলা মেয়াদোত্তীর্ণ আছে, সেগুলো দ্রুত শেষ করতে হবে। আমাদের নতুন দায়িত্বপ্রাপ্তদের কাজ বণ্টন করে দেওয়া হয়েছে। মুজিববর্ষ শুরু হওয়ার আগেই অর্থাৎ ১৭ মার্চের আগে এবং আমাদের ঐতিহাসিক ৭ মার্চ আছে, এর আগে যতটা সম্ভব অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে দলের সভাপতি নির্দেশ দিয়েছেন।’

ওবায়দুল কাদের জানান, দলের নতুন নির্বাহী কমিটির সদস্য ও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যদের নিয়ে আগামী ১৮ জানুয়ারি টুুঙ্গিপাড়ায় যাবেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা। সেখানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং যৌথসভা করবে দলটি।

এ সময় আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ ও আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বি এম মোজাম্মেল হক, আফজাল হোসেন, এস এম কামাল হোসেন ও সাখাওয়াত হোসেন শফিক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক বড়ুয়া, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সবুর, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সেলিম মাহমুদ, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি, আইন বিষয়ক সম্পাদক নজিবুল্লাহ হিরু, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
জানুয়ারি ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« ডিসেম্বর    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া