৬ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ২১শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

ক্যাম্পাস ছেড়ে যাবে না শিক্ষার্থীরা, জাবি উপাচার্যের অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে

ডেস্ক রিপাের্ট : অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা এবং শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ সত্ত্বেও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে বুধবার সকাল থেকেই আন্দোলন অব্যাহত রেখেছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

বুধবার সকাল ৯টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুরাদ চত্বরে জমায়েত হতে থাকেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হলেও অফিসগুলো এর আওতায় রাখা হয়নি। সকালে বিভিন্ন অফিস খোলার চেষ্টা করা হলে আন্দোলনকারীরা গিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বের করে অফিসগুলো বন্ধ করে দেন।

পরে সকাল সাড়ে ১০টায় বিক্ষোভ মিছিল বের করেন তারা। মিছিলটি ছাত্রীদের হলের দিকে গেলে হল থেকে ছাত্রীরা বেরিয়ে এসে মিছিলে যোগ দেন। পরে পুরাতন রেজিস্ট্রার ভবনে গিয়ে তারা সমাবেশে মিলিত হন। দুপুর সোয়া ১২টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সংহতি সমাবেশ চলছিল।

উপাচার্যের বাসভবনের সামনে শতাধিক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার সকাল থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত বিক্ষোভ চালিয়ে যান আন্দোলনকারীরা।

আন্দোলনকারীরা বলছেন, যত কিছুই হোক না কেন তারা ক্যাম্পাস ছেড়ে যাবেন না। উপাচার্যকে অপসারণ না করা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

আন্দোলনের সমন্বয়ক ছাত্র ইউনিয়নের শাখা সেক্রেটারি বলেন, ‘আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। এই উপাচার্যের অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা রাস্তায় থাকব। শিক্ষার্থীরাও হল ছেড়ে যাবেন না।’

দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে সোমবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে জাবি উপাচার্যের অপসারণের দাবিতে তার বাসভবনে অবরুদ্ধ করেন আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। অন্যদিকে আন্দোলনকারীদের মুখোমুখি অবস্থান নেন উপাচার্যপন্থী শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে ছাত্রলীগসহ উপাচার্যপন্থীরা হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে।

এ হামলার ঘটনায় আন্দোলনকারী শিক্ষক, ছাত্রী এবং দায়িত্বরত তিন সাংবাদিকসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে নারী শিক্ষার্থীসহ ৭-৮ জন বেধড়ক মারধরের শিকার হয়েছেন বলে দাবি করেছেন আন্দোলনকারীরা।

এরপর জরুরি সিন্ডিকেট বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা এবং শিক্ষার্থীদের বিকেল সাড়ে ৪টার মধ্যে হল ছেড়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয় বলে জানান ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ।

তবে হল ছাড়তে প্রশাসনের দেওয়া নির্দেশ প্রত্যাখ্যান করে বিকেল পৌনে ৪টার দিকে আন্দোলনকারীরা মিছিল নিয়ে ফের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে জড়ো হন।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
নভেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া