৩রা অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

হংকংয়ে রাবার বুলেটের আঘাতে সাংবাদিকের এক চোখ অন্ধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হংকংয়ে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেটের আঘাতে ইন্দোনেশিয়ার এক সাংবাদিকের ডান চোখ স্থায়ীভাবে অন্ধ হয়ে গেছে।

আহত সাংবাদিকের নাম ভেবি মেগা ইন্দাহ। তাঁর আইনজীবী মাইকেল ভিডলার জানান, গত রোববার চীনের স্বায়ত্তশাসিত এ অঞ্চলে বিক্ষোভের সংবাদ সংগ্রহের কাজ করছিলেন মেগা। এ সময় পুলিশের রাবার বুলেট তাঁর সুরক্ষিত চশমা ভেদ করে চোখে আঘাত হানে।

গতকাল বুধবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়। বিক্ষোভ চলাকালে গত মঙ্গলবার পুলিশের গুলিতে এক তরুণের গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে হংকং।

চীনে কমিউনিস্ট শাসনের ৭০ বছর পূর্তির দিন, মঙ্গলবার, দেশটির স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংকংয়ে ব্যাপক বিক্ষোভ ও সংঘর্ষ হয়েছে। এদিন হংকংয়ে ছাতা নিয়ে, মুখোশ পরে দলে দলে বিক্ষোভকারী জড়ো হতে থাকে। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ও জলকামান থেকে পানি ছোড়ে। পুলিশকে লক্ষ্য করে বিক্ষোভকারীরা প্রজেক্টাইল ও পেট্রলবোমা ছুড়েছে।

হংকংয়ে বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর থেকে পুলিশ এ পর্যন্ত ২৬৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। শতাধিক আন্দোলনকারীকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন সংঘর্ষের ঘটনায় ৩০ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবারের আন্দোলন প্রতিহত করতে পুলিশ ৯০০টি রাবার বুলেট ছুড়েছে এবং কাঁদানে গ্যাসের ১ হাজার ৪০০টি শেল নিক্ষেপ করেছে। প্রতিবাদের প্রথম দুই মাসে বিক্ষুব্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাসের এক হাজার শেল ছোড়ে পুলিশ।

যেভাবে আহত হলেন সাংবাদিক
সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা গেছে, হংকং শহরের ওয়ান চাই এলাকার পথচারী পারাপারের ব্রিজের ওপর একদল বিক্ষোভকারী এবং সাংবাদিকদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ছোড়া হয়।

আইনজীবী মাইকেল ভিডলার জানান, একটি গুলি মাত্র ১২ মিটার দূরত্ব থেকে মেগার চশমায় আঘাত হানে। এ কারণে তাঁর দুটি চোখই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ঘটনার পরপরই তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। গতকাল চিকিৎসকেরা নিশ্চিত করেছেন, মেগার ডান চোখ চিরতরে অন্ধ হয়ে যাবে।

আহত সাংবাদিক মেগা ইন্দোনেশীয় ভাষাভিত্তিক সংবাদপত্র সুয়ারার হয়ে কাজ করেন। তাঁর পরনে দূর থেকে দৃশ্যমান সুরক্ষা ভেস্ট এবং ‘প্রেস’ লেখা হেলমেট ছিল।

মেগার বরাতে আরেক সাংবাদিক জানান, গুলি করার আগমুহূর্তেও তারা চিৎকার করে বলেছিলেন, ‘গুলি করবেন না, আমরা সাংবাদিক।’

সাংবাদিক আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে হংকংয়ে ইন্দোনেশিয়ার কনস্যুলেট জেনারেল তাঁর দেশের নাগরিকদের ওয়ান চাইসহ অন্যান্য আন্দোলনমুখর অঞ্চল এড়িয়ে চলার অনুরোধ করেছেন।

বেসরকারি সংস্থা মাইগ্র্যান্ট কেয়ারের পরিচালক আনিস হিদায়াহ বলেন, হংকং সরকারের এই ঘটনার দায় নেওয়া উচিত। তিনি দ্য জাকার্তা পোস্টকে জানিয়েছেন, ইন্দোনেশিয়ান সরকারের উচিত হংকংয়ের কনস্যুলেট জেনারেলের মাধ্যমে এ ঘটনার তদন্ত করতে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া।

হংকংয়ে আসামি প্রত্যর্পণ বিল উত্থাপন করা হয় গত ফেব্রুয়ারি মাসে। বিল অনুসারে বিচারের জন্য সন্দেহভাজন আসামিকে চীনের মূল ভূখণ্ডে পাঠানো যাবে। তখন হংকংয়ের জনগণ বলেছিলেন, বিলটি পাস হলে হংকংয়ের স্বায়ত্তশাসন খর্ব হবে। বিলটি বাতিলের দাবিতে গত মার্চে বিক্ষোভ শুরু হয়।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া