৩রা অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

কপিল দেবের পদত্যাগ

স্পাের্টস ডেস্ক : স্বার্থের সংঘাত ইস্যুতে ক্রিকেট অ্যাডভাইসরি কমিটির (সিএসি) চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করলেন কপিল দেব। ভারতের সাবেক ক্যাপ্টেনের বিসিসিআইকে পাঠানো পদত্যাগপত্রের প্রাপ্তিস্বীকার করে বোর্ডের এক কর্তা বলেছেন, সিএসি চিফের পদ থেকে উনি পদত্যাগ করেছেন।

স্বার্থের সংঘাত ইস্যুতে সিএসির এক সদস্য শান্তা রঙ্গস্বামী পদত্যাগ করার পরই এ নিয়ে বিতর্ক দেখা দিয়েছিল। ১০ অক্টোবর কমিটির তিন সদস্যকে এ নিয়ে এথিক্স কমিটির কাছে জবাব দিহি করতে হত। সে পথে না হেঁটে সরেই গেলেন কপিল।

এরই মধ্যে আবার কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটরের প্রধান বিনোদ রাই যা বলছেন, তাতে বিতর্ক আরও বেড়ে যাচ্ছে।

বিনোদের কথায়, কপিল দেব, অংশুমান গায়কোয়াড় ও শান্তা রঙ্গস্বামীকে যে চুক্তিপত্র দেওয়া হয়েছিল, তাতে পরিষ্কার বলা ছিল, তাদের শুধুমাত্র কোচ নির্বাচনের জন্য নিয়োগ করা হয়েছে। সেই কারণেই তাদের পদত্যাগপত্র পাঠানোর কোনও দরকার ছিল না।

কপিলদের স্বার্থের সংঘাত ইস্যু জড়িয়ে পড়ার পরে রবি শাস্ত্রীর ভারতীয় টিমের কোচের পদে নিয়োগ কতটা গ্রাহ্য করা হবে, তা নিয়ে জোরালো প্রশ্ন তুলে দিচ্ছে। সেই সঙ্গে বলা হচ্ছে, স্বার্থের সংঘাতের ব্যাপারটা বোর্ড জানতো না, তা তো নয়। তা হলে কপিলদের কেন সিএসির সদস্য হিসেবে নিয়োগ করা হল। সাবেক ক্রিকেটারদের এতে অপমান করা হচ্ছে, তা কি বুঝতে পারছেন বিসিসিআই কর্তারা?

এ নিয়ে বোর্ড অবশ্য কোনও বিতর্ক না চাইলেও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্তা বলেন, কপিল দেবদের মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা এই রকম ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়ছেন। আগে থেকে যদি বলেই দেওয়া হত যে, শুধু ভারতীয় টিমের কোচ বাছাইয়ের জন্যই নিয়োগ করা হয়েছে তাদের, তা হলে সমস্যা তৈরি হত না বা নোটিশের মুখ পড়তে হতো না।

কপিল দেব, শান্তা রঙ্গস্বামীদের স্বার্থের সংঘাত ইস্যু অবশ্য ক্লোজড চ্যাপ্টার বলছেন বিনোদ রাই। তার কথায়, ক্লোজড চ্যাপ্টারই বলতে হবে। ঠিক যেমনটা ঘটেছিল শচিন টেন্ডুলকারের ক্ষেত্রে।

কপিল এ নিয়ে মুখ না খুললেও শান্তা রঙ্গস্বামী কিন্তু পুরো ব্যাপারটা নিয়ে অত্যন্ত বিরক্ত। তিনি বলেছেন, শুধু সিএসি নয়, প্লেয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন থেকেও সরে গিয়েছি আমি। মেইল করে আমি আমার বক্তব্য জানিয়ে দিয়েছি। কিন্তু এতে কি সমস্যা মিটবে? কোনও এক ব্যক্তির অভিযোগে সাড়া দিয়ে এথিক্স অফিসার যদি পদক্ষেপ নেন, তা হলে কিন্তু পুরো ব্যাপারটাই জোরালো ধাক্কা খাবে। বিসিসিআইয়ের নতুন কমিটি আসার পর কিন্তু স্বার্থের সংঘাত নিয়ে গভীর ব্যাখ্যা দিতে হবে। কীভাবে সব বিতর্ক এড়িয়ে যোগ্য ক্রিকেটারদের পাওয়া যাবে, তা নিয়ে কিন্তু ভাবতে হবে।

সব মিলিয়ে যা দাঁড়াচ্ছে, তাতে কপিল দেবরা সিএসি থেকে পদত্যাগ করলেও ওই কমিটির নির্বাচিত কোচ শাস্ত্রীকে নিয়ে দেখা দিচ্ছে নতুন বিতর্ক।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া