২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

ব্যাংকের শেয়ারের দাপটে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে পুঁজিবাজার

ডেস্ক রিপাের্ট : পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের শেয়ারের দাম গত ২২ সেপ্টেম্বর ছিল ৬৬ দশমিক ২ টাকা। ২৯ সেপ্টেম্বর (রোববার) ব্যাংকটির প্রতিটি শেয়ার কেনা-বেচা হয়েছে ৬৯ দশমিক ৯০ টাকায়। অর্থাৎ প্রতিটি শেয়ারের দাম বেড়েছে প্রায় ৪ টাকা।

এক যুগ আগে তালিকাভুক্ত হওয়া ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের শেয়ারের দাম ২২ সেপ্টেম্বর ছিল ২২ দশমিক ৪ টাকা। সেখান থেকে দশমকি ৫৫ টাকা বেড়ে ২৯ সেপ্টেম্বর (রোববার) লেনদেন হয়েছে ২৪ দশমিক ৬০ টাকায়। বড় মূলধনী কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় পুঁজিবাজারের প্রধান সূচক ডিএসইএক্সে ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

ঠিক একইভাবে গত চার দিনে ব্যাংক এশিয়ার শেয়ারের দাম বেড়েছে ৪ টাকা, আল-আরাফার শেয়ারের দাম বেড়েছে প্রায় ৩ টাকা। এগুলোর পাশাপাশি সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, ইসলামী বাংক বাংলাদেশ লিমিটেডসহ পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংকের প্রায় সবগুলোর শেয়ারের দাম বাড়ছে।

বাংলাদেশে ব্যাংকের বিশেষ উদ্যোগের ফলে ইতিবাচক ধারায় ফিরছে পুঁজিবাজারের ‘প্রাণ’ বলে খ্যাত ব্যাংকিং খাত-এমনটাই মনে করেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। ফলে গত সপ্তাহের মতই নতুন সপ্তাহের প্র্রথম কার্যদিবস রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) প্রায় সব ব্যাংকের শেয়ারের দাম বেড়েছে।

এদিন পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত ৩০ ব্যাংকের মধ্যে ২৩টি ব্যাংকের শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ৪টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩টি ব্যাংকের শেয়ারের দাম। আর তাতে সূচকের উত্থানের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। আর তাতে পুঁজিবাজারে বড় ধরনের ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। বাজারও ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে।

এ বিষয়ে ডিএসইর পরিচালক রকিবুর রহমান বলেন, ‘অর্থমন্ত্রী পুঁজিবাজার স্থিতিশীল রাখতে সব ধরনের চেষ্টা করছেন। তার নির্দেশনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর বাজারে তারল্য সংকট কমাতে গত ২২ সেপ্টেম্বর একটি সার্কুলার জারি করার নির্দেশ দেন। নির্দশনা অনুসারে, ব্যাংকগুলো নতুন করে পুঁজিবাজারে ২২ থেকে ২৩ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে পারবে। এমন সুযোগের খবরে ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে বাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। বাজারে প্রতিনিয়তই বাড়ছে ব্যাংক খাতের শেয়ারের দাম।’

বিনিয়োগকারী আতাউল্লাহ নাঈম বলেন, ‘পুঁজিবাজারে তারল্য সংকট কাটা‌তে রেপোর (পুনঃক্রয় চুক্তি) মাধ্যমে অর্থের সহায়তা দেবে বাংলাদেশ ব্যাংক। রোববার (২১ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপারভিশন থে‌কে পুঁজিবাজারে সাময়িক তারল্য সুবিধা প্রদান সংক্রান্ত এক‌টি সার্কুলার জা‌রি ক‌রা হয়েছে। ব্যাংকগু‌লোর বি‌নি‌য়ো‌গ বাড়া‌নো, তারল্য সরবারহ ও গতিশীল পুঁজিবাজার নিশ্চিত করতে এমন সিদ্বান্ত নি‌য়ে‌ছে বাংলাদেশ ব্যাংক।’

বর্তমানে অধিকাংশ ব্যাংকের অগ্রিম ও আমানতের অনুপাত নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে কম এবং বাধ্যতামূলক জমার হার (সিএলআর) সংরক্ষণের পর অতিরিক্ত তারল্য রয়েছে। এসব ব্যাংকের জন্য আইনি সীমার মধ্যে থেকে পুঁজিবাজারে মৌল ভিত্তিক ইনস্ট্রুমেন্টে বিনিয়োগের যথেষ্ট সুযোগ ও সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করনে তিনি।

তার মতে, ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনায় রেখে ব্যাংকগুলোর এমন বিনিয়োগে অংশগ্রহণ (নিজস্ব পোর্টফোলিওতে সরাসরি বিনিয়োগ অথবা সাবসিডিয়ারি কোম্পানিতে ঋণ প্রদানকরত: উক্ত কোম্পানির নিজস্ব পোর্টফোলিওর আকার বৃদ্ধির মাধ্যমে পরোক্ষ বিনিয়োগ) পুঁজিবাজারে তারল্য সরবরাহ বাড়া‌নোর পাশাপাশি একটি গতিশীল পুঁজিবাজার নিশ্চিত করতে সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলারে বলা হয়েছে, এখন থে‌কে তারল্য সুবিধা গ্রহণে ইচ্ছুক ব্যাংকের একক বা একীভূত উভয় ভিত্তিতে পুঁজিবাজার বিনিয়োগ ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ (২০১৮ পর্যন্ত সংশোধিত) এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের এ সংক্রান্ত সার্কুলারে বর্ণিত সর্বোচ্চ সীমার (একক ভিত্তিতে বিবেচ্য মূলধন উপাদানের ২৫ শতাংশ এবং একীভূত ভিত্তিতে বিবেচ্য মূলধন উপাদানের ৫০ শতাংশ) কম হতে হবে। তারল্য সুবিধা গ্রহণের পরও বর্ণিত বিনিয়োগ সীমা পরিপালন করতে হবে।

এ সুবিধার অধীনে প্রাপ্ত তারল্য শুধুমাত্র ব্যাংকের নিজস্ব পোর্টফোলিওতে সরাসরি বিনিয়োগ অথবা সাবসিডিয়ারি কোম্পানির নিজস্ব পোর্টফোলিওতে বিনিয়োগের জন্য সংশ্লিষ্ট সাবসিডিয়ারি কোম্পানিকে ঋণ ‌দি‌তে পার‌বে।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
সেপ্টেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া