১৩ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৯শে ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

গ্রামীণ ফোন ও রবির লাইসেন্স কেন বাতিল হবে না, জানতে চেয়ে বিটিআরসিকে চিঠি

ডেস্ক রিপাের্ট : সরকার ভ্যাট ও ট্যাক্স বাবদ গ্রামীণ ফোনের কাছে পাবে ১১ হাজার ৫৩০ কোটি ১৫ লাখ টাকা এবং রবির কাছে পাবে ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা। বকেয়া এই পাওনা আদায়ে একাধিকবার চিঠি এবং চাপ দেওয়ার পরও সাড়া মিলছে না দেশের দুই শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটরের।
এ অবস্থায় সরকার গ্রামীণফোন ও রবির লাইসেন্স বাতিলের মত কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারে। দুই অপারেটরের লাইসেন্স কেন বাতিল করা হবে না- তা জানতে চেয়ে এরই মধ্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় চিঠি পাঠিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসিকে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তিনি জানান, বকেয়া ভ্যাট ও ট্যাক্স পরিশোধের জন্য একাধিকবার তাগিদ দিলেও গ্রামীণ ফোন ও রবি বিষয়টি মিমাংশা উদ্যোগ নেয়নি। এঅবস্থায় প্রথমধাপে দুই অপারেটরের ব্যান্ডউইথ কমিয়ে দেওয়া হয়। পরে তাদের এনওসি (সেবার অনুমোদন ও অনাপত্তিপত্র) দেওয়া বন্ধ করে দেওয়া হয়। এবার সরকার বকেয়া আইনি পদক্ষেপ নিয়ে চলেছে।

নিরীক্ষা প্রতিবেদনে অনুযায়ী গ্রামীণফোন ও রবির কাছে ১২ হাজার কোটি টাকার বেশি পাওনার কথা জানিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি। তাগাদা দেওয়ার পরও ওই টাকা পরিশোধ না করার যুক্তি দেখিয়ে গত ৪ জুলাই গ্রামীণফোনের ব্যান্ডউইথ ক্যাপাসিটি ৩০ শতাংশ এবং রবির ১৫ শতাংশ সীমিত করতে আইআইজিগুলোকে নির্দেশ দেয় বিটিআরসি।কিন্তু তাতে গ্রাহকের সমস্যা হওয়ায় ১৩ দিনের মাথায় ওই নির্দেশনা প্রত্যাহার করে নেয় বিটিআরসি। এরপর ২২ জুলাই গ্রামীণফোন ও রবিকে বিভিন্ন প্রকার সেবার অনুমোদন ও অনাপত্তিপত্র (এনওসি) দেওয়া স্থগিত রাখার ঘোষণা দেয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

এ বিষয়ে মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবত চেষ্টা করছি। কিন্তু দুই অপারেটর কোনো টাকাই পরিশোধ করছে না, সরকারের কাছে যে তাদের দেনা আছে তা স্বীকারও করছে না। জাতীয় অর্থ আমরা পানিতে ফেলে রাখতে পারি না। এক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। বিআরটিসিকে তাই চূড়ান্ত নোটিস দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বিটিআরসির থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে নিবন্ধিত মোবাইল গ্রাহকের সংখ্যা ১৬ কোটি ৮২ হাজার। এর মধ্যে গ্রামীণ ফোনের সিম ব্যবহার করছে ৭ কোটি ৪৭ লাখ গ্রাহক,আর রবির সিম ব্যবহার করছেন ৪ কোটি ৭৬ লাখ গ্রাহক। এই হিসাবে মোট গ্রাহকের ৪৬.৪৯ শতাংশ গ্রামীণফোন এবং ২৯.৬৫ শতাংশ রবির সেবা নিয়ে থাকেন। দেশের ৯ কোটি ৪৪ লাখ ইন্টারনেট গ্রাহকের মধ্যে ৮ কোটি ৮৬ লাখই মোবাইল ফোনের ইন্টারনেট ব্যবহার করেন, যা মোট গ্রাহকের ৯৩.৮৭ শতাংশ।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
আগষ্ট ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুলাই   সেপ্টেম্বর »
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া