১৭ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

বিহারের অনেকেই মোদির গলা ও হাত কাটতে প্রস্তুত !

MODIআন্তর্জাতিক ডেস্ক : 'মোদির দিকে আঙুল তুললে হাত কেটে নেওয়া হবে। ' ভারতের প্রধানমন্ত্রীর স্তুতি গাইতে গিয়ে এভাবেই বেফাঁস মন্তব্য করেছিলেন বিহারের বিজেপি রাজ্য সভাপতি।
দ্রুত এর জবাব পেয়ে গেল গেরুয়া শিবির।  

প্রতিক্রিয়ায় এমন একজনের থেকে যিনি বরাবরই পর্দার আড়ালে থাকেন। আরজেডি সুপ্রিমো লালুপ্রসাদ যাদবের স্ত্রী রাবড়ি দেবী পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়ে জানালেন মোদির গলা ও হাত কাটার জন্যও বিহারের অনেকে তৈরি। তবে তার কথায় বিতর্কে ফের একরাশ বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় জনতা দলের সর্বভারতীয় সভাপতি পদে ফের নির্বাচিত হন লালুপ্রসাদ। এই নিয়ে ১০বার। স্বামীর হাতে ব্যাটন ওঠার দিনে বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর তোপ, বিজেপির কিছু নেতা বলে বেরাচ্ছেন মোদির দিকে আঙুল তোলা হলে সে আঙুল ভেঙে দেওয়া হবে ও হাত কেটে দেওয়া হবে। আমি তাদের খোলাখুলি চ্যালেঞ্জ করছি। ওরা বিহারবাসীর আঙুল ভেঙে ও হাত কেটে আগে দেখাক।
 

বিহারের মানুষ তাহলে কি চুপ করে থাকবেন? ওদের হাত কেটে দেওয়ার জন্য আমাদের এখানে অনেকেই অপেক্ষা করছেন। নরেন্দ্র মোদির হাত ও গলাকাটার জন্য তৈরি বিহারের অধিকাংশ বাসিন্দা। সোমবার মোদির প্রশংসা করতে গিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন বিহার বিজেপির রাজ্য সভাপতি নিত্যানন্দ রায়।  

তিনি বলেন, যারা নরেন্দ্র মোদির দিকে হাত দেখাচ্ছেন তাদের হাত ভেঙে দেওয়া হবে। আর দরকার হলে হাত কিংবা আঙুল কেটে নেওয়া হবে। হাত এবং আঙুল কেটে নেওয়ার জবাবে গলা ও হাত কাটার হুমকিকে তপ্ত বিহারের রাজনীতি। গত কয়েক মাসে আয়কর হানা সিবিআই মামলায় জেরবার লালু ও তার পরিবার।  

রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা কেন্দ্রের সাঁড়াশি চাপে ব্যতিব্যস্ত যাদব পরিবার বিজেপির দিকে তোপ দাগার জন্য একটা সুযোগ খুঁজছিল। নিত্যানন্দ রায় সেই পরিস্থিতি তৈরি করে দেন। তবে অন্তরালে থাকা লালুর স্ত্রী এমন ঝাঁজাল আক্রমণ অনেকের কৌতুহল বাড়িয়েছে। তার এই মেজাজে চাঙ্গা আরজেডি কর্মীরা।

নিজের বক্তব্যের জন্য পরে অবশ্য ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন নিত্যানন্দ। বলেছিলেন, যারা দেশবিরোধী এবং গরিববিরোধী তারাই ছিলেন নিশানায়। আমি মনে করি মোদি গরিবদের মসিহা। তিনি দুর্নীতি, অভাব, কালো টাকার বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করেছেন। আমি বলতে চেয়েছে যারা এর সঙ্গে একমত নন, তাদের দেশে জায়গা থাকার অধিকার নেই। কিন্তু তার এ সাফাই মানতে নারাজ রাবড়ি দেবী।  

বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী একইসঙ্গে জানিয়ে দেন, সমস্তরকম মামলা-মোকদ্দমার জন্য তৈরি তিনি ও তার পরিবার। কিন্তু বিহার ছেড়ে কোথাও যাবেন না তারা। জিজ্ঞাসাবাদ করতে হলে বিহারে আসতে হবে সিবিআইয়ের গোয়েন্দাদের। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
নভেম্বর ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর   ডিসেম্বর »
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া