৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ২২শে ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

১৩ অক্টোবর নারীরা কেন টুইটার বয়কট করছেন?

কেন ১৩ অক্টোবর টুইটার বয়কট করছেন নারীরা?ডেস্ক রিপাের্ট : সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম ও মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটার ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকছেন একটি বৃহৎ সংখ্যক নারী। টুইটারকে একদিনের জন্য বয়কট করার জন্য ১৩ অক্টোবর নির্ধারণ করেছেন তারা। নারীদের সেই আহ্বানে অসংখ্য নারী সাড়া দেওয়ার সাথে সাথে কিছু পুরুষও ছিলেন যারা এই দিনটিতে টুইটার ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকবেন।

প্রভাবশালী পত্রিকা টেলিগ্রাফ জানায় এই বয়কটের বিষয়টি বেশ সাড়া ফেলেছে।  মূলত নারীর প্রতি বৈষম্য, টুইটারে আক্রমণাত্মক মন্তব্য, নারীর প্রতি যৌন হয়রানীমূলক মন্তব্য এবং বেশ কয়েকজন নারীর টুইটার পোস্ট ও টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়ার প্রতিবাদে এই কর্মসূচী নেওয়া হয়।
অভিনেত্রী রোজ ম্যাকগাওয়ান এর টুইটার অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়ার প্রতিবাদে এই ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিখ্যাত প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইন এর হাতে যৌন নিপীড়নের প্রসঙ্গ নিয়ে লেখাতে তার বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ নিয়েছিল টুইটার কর্তৃপক্ষ।

ওইমেন বয়কট টুইটার হ্যাশট্যাগ দিয়ে এই প্রতিবাদের সূচনা করেন কেলি এলিস নামে এক নারী। তিনি গুগলের সাবেক এই সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার।
টুইটারের বিরুদ্ধে নারীদের অভিযোগ তারা ধর্ষণ ও হত্যার হুমকি প্রতিরোধে কিছুই করতে পারছেনা। কোন কোন ব্যবহারকারী অভিযোগ করেন টুইটার তার নিয়মকানুনগুলো কার্যকর করার ক্ষেত্রে পক্ষপাতমূলক আচরণ করে।
যেমন ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুমকি ধমকিমূলক টুইটার পোস্টগুলো নিয়ে টুইটার কর্তৃপক্ষ বেশ নীরব। তার বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি টুইটারকে।
এ সব অভিযোগ মিলিয়ে টুইটারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ চরমে। একদিনের বয়কটে টুইটার কি পদক্ষেপ নেয় সেটা দেখবার বিষয়!

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া