১০ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৬শে ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

চাপে মুশফিকরা- বড় ইনিংসের পথে স্মিথবাহিনী

Australian cricketer David Warner (R) shakes hand with teammate Peter Handscomb after scoring a half century during the second day of the second cricket Test match between Bangladesh and Australia at Zahur Ahmed Chowdhury Stadium in Chittagong on September 5, 2017.  / AFP PHOTO / Munir UZ ZAMAN        (Photo credit should read MUNIR UZ ZAMAN/AFP/Getty Images) ক্রীড়া প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে মুশফিকুর রহিমদের ৩০৫ রানের ইনিংসটা একেবারে ছোট নয়। মিরপুর টেস্টের প্রথম ইনিংসে ২৬০ রান থেকে তো অনেক বড়। তার উপর ইনিংসের শুরুতেই মুস্তাফিজুর রহমান অস্ট্রেলিয়া শিবিরে আঘাত হানলে বেশ উজ্জীবিত হয়ে ওঠে টাইগারবাহিনী। এরপর সময়ের সঙ্গে পাল্টাতে থাকে ম্যাচের দৃশ্যপট। স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার আর হ্যান্ডসকম্ব মুশফিক-সাকিবদের হতাশ করে দিনশেষে একট ভিত গড়ে রাখলেন। স্মিথ বিদায় নিলেও দমে যায়নি অজিরা। ওয়ার্নার আর হ্যান্ডসকম্ব বাংলাদেশের ৩০৫ রানের বিপরীতে ২ উইকেটে ২২৫ রান করে অনেকটা স্বস্তিতে মাঠ ছাড়ে।  
মঙ্গলবার চট্টগ্রামের যেই পিচে সকালের সেশনে মুশফিক-নাসিররা সংগ্রাম করেছেন সেই পিচেই কিন্তু রানের ফুল ফোটান স্টিভেন স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নার-পিটার হ্যান্ডসকম্ব। এই তিনজন বাংলাদেশের বোলারদের হতাশ করে অস্ট্রেলিয়াকে চালকের আসনে নিয়ে যান। টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে ৮ উইকেট হাতে রেখে বাংলাদেশের চেয়ে ৮০ রানে পিছিয়ে রয়েছে স্মিথবাহিনী। সবমিলিয়ে টাইগারদের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জই অপেক্ষা করছে। চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিন ৬ উইকেটে ২৫৩ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। অজি বোলারদের তোপের মুখে পড়ে লাঞ্চের আগেই ৩০৫ রানে গুটিয়ে যায় লাল-সবুজের দেশ। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে দিন শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ২২৫ রান তুলেছে অস্ট্রেলিয়া। লিড নেয়ার স্বপ্নে  দারুণভাবে এগিয়ে চলেছে স্টিভেন স্মিথের দল।
ইনিংসের শুরুতেই ম্যাট রেনশকে হারিয়ে ধাক্কা খায় অস্ট্রেলিয়া। তবে স্মিথ ও ওয়ার্নার জুটি বাংলাদেশের কাছ থেকে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ কেড়ে নেয়। এরপর তৃতীয় উইকেটে স্মিথ-হ্যান্ডসকম্বের হার না মানা সেঞ্চুরি (১২৭) জুটিতে ম্যাচে আধিপত্য বিস্তার করে অস্ট্রেলিয়া। রেনশ ৪ রান করে ফিরে গেলেও বাকি তিনজনই রানের দেখা পান। স্মিথ আউট হন ৫৮ রান করে। দিন শেষে ওয়ার্নার ৮৮ এবং হ্যান্ডসকম্ব ৬৯ রানে অপরাজিত রয়েছেন।
মঙ্গলবার ৬ উইকেটে ২৫৩ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। দিনের শুরুতেই মুশফিকুর রহিম ফিরে গেলে নাসির হোসেন ও মেহেদী হাসান মিরাজ ছোট অথচ কার্যকরী জুটি গড়ে দলের সংগ্রহ ৩০০ পার করেন। আগের দিনের সঙ্গে আরো চার রান যোগ করে ব্যক্তিগত ৬৬ রানে আউট হন মুশফিক। ১৯ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামা নাসির আউট হন ৪৫ রান করে। আগের দিন সাব্বির আউট হয়েছেন ৬৬ রান করে। টেস্টে এটাই তার সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত সংগ্রহ। সৌম্য সরকার ৩৩, মুমিনুল হক ৩১ এবং সাকিব করেন ২৪ রান। তামিম ইকবাল ৯ এবং ইমরুল কায়েস ৪ রান করে আউট হন।
ইতিহাসের প্রথম বোলার হিসেবে কোনো দলের প্রথম চার ব্যাটসম্যানকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলা নাথান লায়ন যথারীতি অস্ট্রেলিয়ান বোলিং অ্যাটাকের নায়ক। ৯৪ রানের বিনিময়ে ৭ উইকেট নেন এই অজি স্পিনার। এই নিয়ে টানা তিন টেস্টে ৫ উইকেটের দেখা পেলেন লায়ন। অ্যাস্টন অ্যাগার নেন দুটি উইকেট।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
সেপ্টেম্বর ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট   অক্টোবর »
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া