২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশ তৃতীয়

U-19 Cricket Picফতুল্লা থেকে জহির ভূইয়া : প্রথম বার সেমিতে খেলার খুশিটা ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্ ুদিন আগে কবর রচিত হয়েছে অতি আতœবিশ্বাসের কারনে। সেমিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩ উইকেটে হেরে প্রথম বার অনু-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট আসরের ফাইনালে খেলার স্বপ্নটা মাটি চাপা হয়ে যায়। সেই ভূল আর দ্বিতীয় আর করেনি স্বাগতিকদের ছোট ক্রিকেট দল। ফতুল্লার উইকেটে শেষ বিকেলে যখন কুমারার বলটি (৪৯.৩ ওভার) জাকের তুলে দিলেন বল বাউন্ডারি স্পর্শ করার আগেই মাঠের বাইওে থাকা মেহেদী হাসান বাহিনী মাঠের দিকে দৌড় দেয়। বল মাটিতে আর ক্রিকেটাররা উইকেটের মাঝে আনন্দেও নাচ শুরু করেছে। কারন বাংলাদেশ ছোটদের ক্রিকেট দলটা যে এখন আইসিসির তালিকায় ৩য় স্থান দখল করেছে। আনন্দটা সে কারনেই।

ফতুল্লার আজ ৩ উইকেটে শ্রীলঙ্কান অনু-১৯ ক্রিকেট দলকে হারানের মধ্যে দিয়ে আইসিসির এবারের আসরে ৩য় স্থানে নাম লিখিয়েছে স্বাগতিকদের ছোট ক্রিকেট দল। লঙ্কান ছোটরা ৪৮.৫ ওভার ২৪১ রানে অলআউট। আর বাংলাদেশ ২১৫ রান করে ৭ উইকেটে ৩ বল অক্ষত রেখে, শ্রীলঙ্কান ছোটদের ক্রিকেট দল ৪র্থ স্থানে।

১৯৮৮ সালে অনু-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট আসর শুরু হবার পর থেকে ১০টি আসর শেষ হয়েছে। তাতে ছিল না কোন উল্লেখ্যযোগ্য দলীয় পারফর্মেন্স। ২০১৪ দক্ষিন আফ্রিকা আসরে যে দলটির অংশ নিয়েছিল, সে দলের ৬ জন ক্রিকেটার এই আসরেও আছেন। পর পর দুই বার অনু-১৯ দলের অধিনায়কত্ব করলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। টানা তিন ম্যাচে ফিফটি, আসরে ৪ ফিফটি করে ছোটদের আসরে গড়লেন নতুন রেকর্ড।

টস জিতে ফতুল্লার উইকেটে আগে ব্যাট করে লঙ্কান ছোটদের দল স্কোর বোর্ডে জমা করে ২১৪ রানের পুঁজি। সেই টার্গেটকে স্বাগতিকদের ছোটদের ক্রিকেট দল ৩ উইকেটে ২১৫ রান ৪৯.৩ ওভারে স্পর্শ করে ফেলে। এবং ১১তম আসরে এসে বাংলাদেশ অনু-১৯ ক্রিকেট দল ৯ম স্থান থেকে সরাসরি আইসিসির মুল তালিকার ৩য় স্থানে চলে এসেছে শ্রীলঙ্কান ছোটদের হারিয়ে।

২১৫ রানের জবাব দিতে নেমে ওপেনার জাকির শূণ্য রানে বোল্ড! স্কোর তো মাত্র ১! এরপর ওয়ান ডাউনে নামা ২৬ রান করে ক্যাচ দিলেন। মিডল অর্ডারে জাকির আলী চেস্টা করলেন। তবে ১৯ রানে বেশি করতে পারলেন না। আহত হয়ে মাঠ ছাড়লেন। ৩ উইকেট জুটিতে নাজমুল হাসান শান্ত আর অধিনায়ক মেহেদী হাসান জুটি ৫৯ থেকে ১৪৭ পর্যন্ত লড়াই করে জয়ের ভিত্তি রচনা করলেন। মেহেদী হাসান ৫৩ রান করে রান আউট হলেন। শান্ত ৪০ রানে একই ভবে রান আউট হলেন। ৪ উইকেটে স্কোর ১৫৮ রান, ওভার বাকী ১১.২। জয় পেতে রান দরকার ৫৯। হাতে আছে অক্ষত ৬টি উইকেট।

এরপর সাইফুল হায়াত আর সাইফউদ্দিন জুটি হাল ধরলেন। কিন্তু এই জুটি বল একটু বেশিই ব্যয় করে ফেলে। যে কারনে জয় পেতে ২৭ বলে দরকার পড়ে ৩৪। তবে হাতে উইকেট ছিল। এটা ছিল ভরসা। ৪৮ ওভারে ২০১, কিন্তু উইকেট ৬টি! কারন  হায়াত ২১ রানে আর মোসাদ্দেক হোসেন ১১ রানে উইকেট দিলেন। ১২ বলে ১৪ রান হলেই জয়। উইকেটে সাইফুদ্দিন আর আহত হয়ে মাঠ ছেড়ে যাওয়া জাকের আলী। ৪৯ ওভারের শেষ বলে রান আউট হলেন ১৯ রানে সাইফুদ্দিন। ৭ উইকেটে রান ২১১। শেষ ওভারের ৬ বলে ৪ রান! কঠিন কোন হিসেব নয়। ৪৯.২ ওভারে স্কোর লেভেল ২১৪। ৪৯.৩ ওভারে জাকের তুলে মেরে বল মাঠের বাইরে পাঠালে জয় নিশ্চিত হয়ে যায়।

এর আগে টস জিতে শ্রীলঙ্কান অনু-৯১ ক্রিকেট দলের দুই ওপেনার ৬০ রান পর্যন্ত স্কোর টেনে নেয়। ওপেনার সোলিন্দু ৩৪ রানে ফেরত যান। আরেক ওপেনার মেন্ডিস ২৬ রানে। ২ উইকেটে ৬৩ থেকে ৭০ রানে তৃতীয় উইকেটের পতন ঘটে। ফার্নান্দোর ৬ রানে অধিনায়ক মেহেদীর বলে ক্যাচ দিলেন।

মিডল অর্ডারে সাম্মু ২৭ রানে ক্যাচ দিলেও আসালাঙ্কা ৭৬ পর্যন্ত টিকে থাকলেন। তার ব্যাটে ভর দিয়েই মুলত লঙ্কানদেও রান দুই শত পেরিয়ে যায়। বিসাদ ডি সিলভা ১০ আর ওয়ানিদুর ৩০ রানে লঙ্কান ছোটদের দল ২১৪ রানে পা রাখে ৪৮.৫ ওভারে অলআউট। মেহেদী হাসান মিরাজ ১০ ওভারে ২ মেডেন দিয়ে ২৮ রানে শিকার করেন ৩ উইকেট। সাইফউদ্দিন ৮ ওভারে ৪৮ রানে ২টি এবং আব্দুল হালিম ৫.৫ ওভারে ২৬ রানে শিকার করেন ২টি।

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ
ফেব্রুয়ারি ২০১৬
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জানুয়ারি   মার্চ »
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯  


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া