৭ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৩শে ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

নবজাতককে বাইরে রেখে অ্যাম্বুলেন্সের ভেতরে পরীক্ষা দিলেন মা

এক দিনের সন্তানকে শাশুড়ির কাছে রেখে অ্যাম্বুলেন্সে বসেই পরীক্ষা দিলেন জান্নাতুল। ছবি: শহীদুল ইসলাম

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রসবব্যথা ওঠার পর গতকাল রাতে স্থানীয় এক ক্লিনিকে নেওয়া হয় সম্মান তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষার্থী জান্নাতুল মাওয়াকে। সেখানে অস্ত্রোপচারের পর তিনি জš§ দেন একটি পুত্রসন্তান। সন্তানের মুখ দেখে শারীরিক যন্ত্রণা ভুললেও মনে ছিল দুশ্চিন্তা। পরের দিন (আজ সোমবার) যে তাঁর সম্মান তৃতীয় বর্ষের শেষ পরীক্ষা।
তবে সব দুশ্চিন্তা জয় করে প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাস নিয়ে আজ ঠিকই পরীক্ষার সময় পঞ্চগড় মহিলা কলেজের পরীক্ষাকেন্দ্রে হাজির হন জান্নাতুল। তিনি পঞ্চগড় মকবুলার রহমান সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী। পরীক্ষাকেন্দ্রের নিয়ম-বিধি মেনে অ্যাম্বুলেন্সের বিছানায় বসে পরীক্ষা দেন তিনি। তত্ত্বাবধানে ছিলেন শিক্ষক হাসনুর রশিদ। আর জান্নাতুলের সদ্যোজাত ছেলে তখন তার দাদির কোলে।
এ ব্যাপারে জান্নাতুল বলেন, ‘সন্তানের কথা ভেবেই পরীক্ষা দিলাম। অ্যাম্বুলেন্সে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ।’
জান্নাতুলের স্বামী গোলাম মোস্তফা জানান, তাঁদের বাড়ি বোদা উপজেলার সাকোয়ায়। তাঁদের বিয়ে হয়েছে দুই বছর। সন্তান গর্ভে নিয়েই জান্নাতুল পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়েছেন এবং পরীক্ষায়ও অংশ নেন। পঞ্চগড় মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ কানাই লাল কুণ্ড বলেন, জান্নাতুলের পরীক্ষা দেওয়ার অদম্য ইচ্ছাকে সম্মান জানিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে বসে তাঁকে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। আশা করি সে পরীক্ষায় ভালো করবে।

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া