৩০শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ১৫ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

adv

চলতি মাসেই আসছে ছাত্রদলের নতুন কমিটি

Image result for pic bnp logoসোহাগ খান: সারাদেশে ছাত্রগণ-আন্দোলন তৈরী জন্য সাবেক ছাত্রনেতাদের পরামর্শে চলতি মাসেই ঘোষণা করা হবে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের নতুন কমিটি। ইতিমধ্যে সিনিয়র-জুনিয়রের সমন্বয়ে ছাত্রদলের নতুন কমিটি চুড়ান্ত করেছেন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এখন কেবলমাত্র ঘোষণার অপেক্ষা।
খালেদা জিয়ার ঘনিষ্ট একটি সূত্র  জানায়,ছাত্রদলের নতুন কমিটিতে সভাপতি পদে থাকার জন্য সমানতালে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন সাবেক সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম নয়ন, বর্তমান সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, সহ-সভাপতি আবু সাইদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি ও পটুয়াখালী গলাচিপা-দশমিনা আসনের মনোয়ন প্রত্যাশী হাসান মামুন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে মোটামুটি চুড়ান্ত আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন এছাড়াও চেষ্টায় রয়েছে যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল হক নাসির, ফেরদাউস মুন্না, আকরামুল হাসান, মশিউর রহমান মিশু প্রমূখরা। এদিকে, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে বর্তমান দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান, ও সিনিয়র যুগ্ন সাধারন সম্পাদক পদে ঢা.বি শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি সাদিউল কবির নিরব বা কেন্দ্রীয় যুগ্ন সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনিরকে দেখা যাওয়ার সম্ভবনা অনেক বেশী। এছাড়াও সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে বর্তমান সহ-সভাপতিদের মাঝে থেকে আনোয়ারুল হক রয়েল,শহীদুল্লাহ এমরান , বিল্লাল হোসেন তারেক, রাজু তালুকদারের যে কোন একজন কে দেখা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন সুত্রটি।
তবে ছাত্রদলের নীতিনির্ধারক বলে পরিচিত এক নেতা জানান, সাধারন সম্পাদক হিসেবে আনিসুর রহমান তালুদার খোকনের নাম চুড়ান্ত। এখন কেবল সভাপতি নির্ধারণ করতে হিম-শিম খাচ্ছেন দলীয় চেয়ারপার্সন। কেননা দলের একটি বড় অংশ সভাপতি হিসেবে চাচ্ছেন সাবেক সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম নয়নকে আর ছাত্রদল নিয়ত্রনকারী প্রয়াত বিএনপির সাংগাঠনিক সম্পাদক ইলিয়াস আলী গ্র“পের কর্ণাধাররা বিশেষ করে সদ্য গঠিত মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব হাবিবুন নবী খান সোহেল জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন সাইফুল ইসলাম ফিরোজ কে নিয়ে। ছাত্রদল নিয়ত্রনকারী দুই অংশের মাঝে বাকি অংশটি(আমান-খোকন-আলম) চাচ্ছেন নয়নের বিকল্প হিসেবে বর্তমান কমিটিতে অনাস্থাপ্রদানকারী বৃহৎ অংশের নেতৃত্বে থাকা আবু সাঈদকে। যার ফলে বিলম্বিত হচ্ছে কমিটি ঘোষনায়। চেয়ারপার্সনের ঘনিষ্ট আর একটি সুত্র জানায় যেহেতু ছাত্রদল নিয়ত্রন করতেন সাবেক ছাত্রনেতা হিসেবে সবসময় আমান-ইলিয়াস রা দুটি গ্র“পে বিভক্ত হয়ে। তাই শেষ মূহূতে চেয়ারপার্সন দুই গ্রপের সমন্বয়ে ফিরোজ-খোকন কমিটিই ঘোষনা দিতে পারেন। তিনি আরও জানান সুপার দুই সিনিয়র দিয়ে ঘোষিত হলেও  বাকি পদ গুলোতে অপেক্ষাকৃত জুনিয়রদের দেওয়া হবে। 
উল্লেখ্য কিছুদিন পূর্বে বর্তমান সাংগাঠনিক সম্পাদক রাজীব আহসান ও মামুনুর রশীদ মামুন কে দিয়ে ছাত্রদল কমিটি গঠনের জোর প্রচেষ্টা চালায় বিএনপির ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক এ্যাণী এবং সহ-ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক টুকু। কিন্তু বিএনপির যুগ্ন-মহাসচিব মাহাবুব উদ্দিন খোকন মামুনের শিবিরের চাদা দেওয়ার রশিদ নিয়ে খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করে মামুনের বিষয়ে চরম বিরোধিতা করেন বলে জানা যায়। অপরদিকে পেশাজীবি পরিষদের এক সাংবাদিক নেতা রাজীবের ডিসেম্বরে ছাত্রদলের নামে চাদাবাজির প্রমান সহ দলীয় প্রধানের সঙ্গে দেখা করে বিরোধিতা করলে সেই কমিটি গঠনের প্রকিয়া থেমে খালেদা জিয়ার হজ্ব যাত্রার আগেই। উপরন্তু খালেদা জিয়ার চরম বিরাগভাজন হন তাদের পক্ষে তদবিরকারী এ্যানী-টুকু। যার ফলে যুবদলের নেতৃত্বে আসার স্বপ্ন ধুলিস্যাৎ হয় সাবেক এই দুই ছাত্রনেতার।
তবে ছাত্রদলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা মনে করেন, ছাত্রদলের নেতৃত্বদানে আগামী দিনে এমন একজন নেতা নির্বাচন করতে হবে যাতে করে ছাত্রদল ৯০ধারায় ফিরে গিয়ে তাদের হারানো ঐতিহ্য ফিরে এনে আবারও বিএনপির আন্দোলন সংগ্রামের ভ্যানগার্ডে রুপান্তরিত হয়। তাদের বিশ্বাস দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আগামী দিনে আন্দোলনে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থার অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবি আদায়ে ক্ষমতাসীন সরকারকে বিদায় করতে ছাত্রদলের নেতৃত্বে রাজপথ কাপানো, নির্যাতিত, ত্যাগী, যোগ্য ও মেধাবীদের অগ্রাধিকার দিবেন।
উল্লেখ্য, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সর্বশেষ কমিটি করা হয়েছিল ২০১২ সালের ৪ সেপ্টেম্বর। এ কমিটির সভাপতি আব্দুল কাদের জুয়েল সাধারণ সম্পাদক মহানগর দক্ষিনের হাবীবুর রশীদ হাবীব।ছাত্রদলকে  ৯০ এর ধারায় ফিরে নিয়ে যেতে আমুল পরিবর্তন আনা হবে আগামী কমিটিতে এমনি তথ্যই জানিয়েছেন খালেদা জিয়ার ঘনিষ্ট একটি সুত্র।

 

 

 

জয় পরাজয় আরো খবর

Comments are closed.

adv
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাতকার
adv
সব জেলার খবর
মুক্তমত
আর্কাইভ


বিজ্ঞাপন দিন

adv

মিডিয়া